kalerkantho


দিনাজপুরে ক্ষতিগ্রস্ত মালিকদের মাঝে পশুখাদ্য বিতরণ

দিনাজপুর প্রতিনিধি    

২২ আগস্ট, ২০১৭ ১৪:৩২



দিনাজপুরে ক্ষতিগ্রস্ত মালিকদের মাঝে পশুখাদ্য বিতরণ

ভয়াবহ বন্যা শুধু মানুষের ঘরবাড়ি সম্পদ বিনাশ আর প্রাণহানি ঘটায় না। চরম দুর্ভোগ বয়ে আনে প্রাণিকূলেও।

সহায়তার ত্রাণ নিয়ে বন্যার্ত মানুষের পাশে দাঁড়ান সরকারি-বেসরকারি প্রতিষ্ঠানসহ বিত্তশালীরা। এবারের বন্যায় খাদ্য সংকটের শিকার হয়েছে গৃহপালিত গরু-ছাগলসহ প্রাণিকূল।

অবলা পশুর মুখে খাবার তুলে দিতে প্রথমবারের মতো দিনাজপুরে খামারিদের মাঝে প্রক্রিয়াজাতকরণ উন্নত মানের পশুখাদ্য (ফিড) বিতরণ শুরু করেছে জেলা প্রাণিসম্পদ বিভাগ। আজ মঙ্গলবার ক্ষতিগ্রস্ত খামারি পরিবারের হাতে দানাদার খাদ্য তুলে দিয়েছেন জাতীয় সংসদের হুইপ ইকবালুর রহিম এমপি। আমিষের চাহিদা পূরণে প্রাণিসম্পদ রক্ষায় প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশে পশুখাদ্য বিতরণ করা হচ্ছে বলে জানিয়েছেন হুইপ।

জানা গেছে, দিনাজপুরের ১৩ উপজেলায় বন্যাকবলিত এলাকায় ৬ লক্ষাধিক মানুষের পাশাপাশি ক্ষতির শিকার হয়েছে ৫ লাখ ৮৬ হাজার ১৩টি গবাদি পশু। পশুর প্রধান খাদ্য ১৬৬৬ একর জমির কাঁচা ঘাস এবং দেড় হাজার মেট্রিক টন ধানের কাড়ি (খড়) নষ্ট হয়েছে এবাররের বন্যায়। পশুখাদ্যর মূল্য দ্বিগুণের বেশি বৃদ্ধির পাওয়ায় ঠিকমতো খাবার পাচ্ছে না প্রাণিকূল।

প্রাণিসম্পদ অধিদপ্তরের মহাপরিচালক ডা. আইনুল হক জানান, বন্যাকবলিত দিনাজপুরের গৃহপালিত প্রাণীর জন্য ত্রাণ সহায়তা হিসেবে খৈল ভুষির সমন্বয়ে প্রক্রিয়াজাত করা ১০ মেট্রিক টন দানাদার খাদ্য সহায়তা দিয়েছে (পশুখাদ্য) ফিড উৎপাদনকারী বিভিন্ন প্রতিষ্ঠান।

 

পশুখাদ্য বিতরণ অনুষ্ঠানে আরো উপস্থিত ছিলেন প্রাণিসম্পদ অধিদপ্তরের মহাপরিচালক ডা. আইনুল হক এবং জেলা প্রাণিসম্পদ কর্মকর্তা ডা. আবুল কালাম আজাদ, আওয়ামী লীগ নেতা বিশ্বজিৎ ঘোষ কাঞ্চন এবং আনোয়রুল ইসলামসহ অন্যান্যরা।


মন্তব্য