kalerkantho


ভোলায় মুক্তিপণ দিয়ে ফিরে এলো জেলে

ভোলা প্রতিনিধি   

২০ আগস্ট, ২০১৭ ১৫:৪০



ভোলায় মুক্তিপণ দিয়ে ফিরে এলো জেলে

ভোলার মনপুরার মেঘনা থেকে হাতিয়ার জলদস্যু বাহিনী কর্তৃক অপহৃত নিকসন মাঝি ৩০ হাজার টাকা মুক্তিপণ দিয়ে ফিরে এসেছেন। জলদস্যুরা তাকে গত শুক্রবার রাতে ঢালচর পূর্ব পার্শ্বে জাগলার চরসংলগ্ন মেঘনা নদী থেকে মাছ ধরা অবস্থায় অপহরণ করে হাতিয়ার রামচরণ এলাকায় নিয়ে যায়।

পরে অপহৃত মাঝি থেকে মুক্তিপণ বাবদ ৩০ হাজার টাকা আদায় করে শনিবার দিবাগত রাত ৩টায় রামচরণ বাজারের কাছাকাছি এলাকায় ছেড়ে দেয়।

পরে অপহৃত জেলে সারারাত হাতিয়ার রামচরণ বাজারে থাকার পর তার আত্মীয়রা অপহৃত জেলে নিকসন মাঝিকে নিয়ে রবিবার সকাল ১০টার দিকে রামনেওয়াজ মৎস্য ঘাট এসে পৌছে। অপহরণের ৩৪ ঘণ্টা পর অপহৃত জেলে মাঝি উদ্ধার হওয়ায় পরিবারের সদস্যদের মাঝে স্বস্তি ফিরে এসেছে।

উদ্ধার হওয়া জেলে নিকসন মাঝি জানান, ইলিশ ধরা অবস্থায় হাতিয়ার জলদস্যু বাহিনী তাদের ট্রলার থেকে তাকে অপহরণ করে নিয়ে যায়। হাতিয়ার রামচরণ এলাকায় তার চোখে কাপড় বেঁধে জিম্মি করে মারধর করে। জলদস্যুরা নিকসন মাঝির কাছ থেকে ৫০ হাজার টাকা মুক্তিপণ দাবি করে। মুক্তিপণের টাকা দিতে বিলম্ব হওয়ায় তাকে বেধড়ক মারধর করেছে বলেও জানান তিনি। মুক্তিপণের টাকা পাওয়ার পর তারা তাকে ছেড়ে দেয় ।  
তবে, মুক্তিপনের টাকা দেওয়ার ব্যাপারে জলদস্যুদের ভয়ে কেউ মুখ খুলতে সাহস পাচ্ছেনা।

আড়তদাররাও জলদস্যুদের ভয়ে কিছু বলতে চাচ্ছেনা। অপহৃত নিকসন মাঝি মুক্তি পেয়ে মনপুরা সদর হাসপাতালে চিকিৎসা নিয়েছেন।

অপহৃত জেলে উদ্ধার হওয়ার কথা নিশ্চিত করে মনপুরা থানার ওসি মো. শাহীন খান বলেন, খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে গিয়ে অপহৃত জেলেকে উদ্ধারের জন্য প্রশাসনের পক্ষ থেকে চেষ্টা করা হয়।


মন্তব্য