kalerkantho


সোনারগাঁ

উঠে গেছে সড়কের পিচ, ইটের সুরকি

আসাদুজ্জামান নূর, সোনারগাঁ (নারায়ণগঞ্জ)    

২০ আগস্ট, ২০১৭ ০৯:৫৭



উঠে গেছে সড়কের পিচ, ইটের সুরকি

নারায়ণগঞ্জের সোনারগাঁ উপজেলার ঢাকা-বাইপাস সড়কের নয়াপুর ও ঢাকা-আড়াইহাজার সড়কের তালতলা এলাকায় বড় বড় গর্তের সৃষ্টি হয়েছে। এতে ওই এলাকা দিয়ে গাড়ি চলাচলে মারাত্মক সমস্যায় পড়তে হচ্ছে চালকদের। প্রতিদিন ছোট-বড় দুর্ঘটনার কবলে পড়ে অনেকে পঙ্গুত্ব বরণ করছে, আবার অনেকেই নিচ্ছে জনমের মতো বিদায়। সড়কের এ করুণ দশার কারণে যানজটে বসে ঘণ্টার পর ঘণ্টা কাটাতে হচ্ছে যাত্রীদের। ঈদলগ্নে এ দুর্ভোগ চরম আকার ধারণ করবে বলে মনে করছে স্থানীয় বাসিন্দারা।

গত শুক্রবার সকালে নয়াপুর ও তালতলা এলাকায় গিয়ে দেখা যায়, সড়কের পিচ ও ইটের সুরকি উঠে গিয়ে বড় বড় গর্ত হয়ে আছে। বৃষ্টির পানি গর্তের মধ্যে জমে থাকায় চালকরা গাড়ি চালাতে গিয়ে দুর্ঘটনার কবলে পড়ছে। গত এক মাসে প্রায় সাতজন যাত্রী পঙ্গু হয়েছে এ সড়কে। শুধু তা-ই নয়, সড়কের এ করুণ দশার কারণে বিভিন্ন মালবাহী ও যাত্রীবাহী পরিবহনজটে ঘণ্টার পর ঘণ্টা নষ্ট হচ্ছে যাত্রীদের। স্থানীয় জামপুর ইউনিয়নের কাজীপাড়া গ্রামের বাসিন্দা তাইজ উদ্দিন ও কাজী সালাউদ্দিন বলেন, ‘এই সড়ক অত্যন্ত ব্যস্ততম একটি সড়ক। প্রতিদিন হাজার হাজার মালবাহী ও যাত্রীবাহী পরিবহন চলাচল করে এই সড়ক দিয়ে।

সড়কটি দীর্ঘদিন ধরে সংস্কার না করায় যানবাহন চলাচলে খুবই সমস্যা হচ্ছে। এই সড়ক দিয়ে দুটি কলেজ, পাঁচটি উচ্চ বিদ্যালয়, ১০টি মাদরাসা ও পাঁচটি সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শত শত শিক্ষার্থী চলাচল করে থাকে। এ ছাড়া পণ্যবাহী ট্রাক ও লরি চট্টগ্রাম থেকে জয়দেবপুর যাওয়ার সময় নয়াপুর এলাকা দিয়ে ঝুঁকি নিয়েই গাড়ি চালাচ্ছেন চালকরা। ' তালতলা গ্রামের বাসিন্দা মজিবুর রহমান বলেন, 'সড়কটি দীর্ঘদিন ধরেই যানবাহন চলাচলের অযোগ্য হয়ে আছে। তার পরও সংস্কারের কোনো পদক্ষেপ নিচ্ছে না কর্তৃপক্ষ। গত এক মাসে বেশ কিছু যাত্রী দুর্ঘটনার কবলে পড়ে পঙ্গু হয়েছেন। '

বাসযাত্রী আল আমিন ও আব্দুর নূর বলেন, এ সড়কের নয়াপুর ও তালতলা এলাকায় প্রতিদিন যানজটে পড়ে ঘণ্টার পর ঘণ্টা বসে থাকতে হয় যাত্রীদের। ঈদের আগে সড়কটি মেরামত করা না হলে ঈদে ঘরমুখো মানুষকে চরম দুর্ভোগ পোহাতে হবে। ঢাকা-বারদী সড়কে চলাচলকারী যাত্রীবাহী বাসের চালক হারুন মিয়া বলেন, 'নয়াপুর এলাকা থেকে তালতলা পর্যন্ত প্রায় তিন কিলোমিটার সড়কের অনেক জায়গায়ই বড় বড় গর্ত। এর ফলে গাড়ির মূল্যবান যন্ত্রাংশ ভেঙে আমাদের অনেক ক্ষতি হচ্ছে। ' মহজমপুর ভূমি অফিসের সহকারী শাকিল হোসেন বলেন, 'সড়কটি ভাঙা থাকায় আসা-যাওয়ার পথে শরীর ব্যথা হয়ে যায়। দ্রুত সড়কটি সংস্কার করা না হলে যাত্রীদের দুর্ভোগের কোনো সীমা থাকবে না। '  এ ব্যাপারে সাদিপুর পরিষদের চেয়ারম্যান আব্দুর রশিদ মোল্লা বলেন, 'এলাকাবাসীর দুর্ভোগের কথা চিন্তা করে ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষকে কয়েকবার বিষয়টি জানিয়েছি; কিন্তু কোনো ফল হয়নি। '

সোনারগাঁর ইউএনও শাহিনুর ইসলাম বলেন, 'সড়কটি মেরামতের জন্য এরই মধ্যে মন্ত্রণালয়ে চিঠি পাঠানো হয়েছে। ' নারায়ণগঞ্জ সড়ক বিভাগের উপবিভাগীয় প্রকৌশলী (ভিটিকান্দী) ইমরান ফারহান জানান, সড়কটি মেরামতের জন্য খুব শিগগির ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে। নারায়ণগঞ্জ-৩ (সোনারগাঁ) আসনের সংসদ সদস্য লিয়াকত হোসেন খোকা বলেন, 'সড়কটি মেরামত করার জন্য এরই মধ্যে মন্ত্রণালয়ে ডিও লেটার দেওয়া হয়েছে। ঈদের আগেই সড়কটি মেরামত করে ঘরমুখো যাত্রীদের দুর্ভোগ কমানোর চেষ্টা করা হবে। '

 


মন্তব্য