kalerkantho


নড়াইলে গৃহবধূর শরীরে অ্যাসিড নিক্ষেপ

নড়াইল প্রতিনিধি    

১৯ আগস্ট, ২০১৭ ১৯:১৪



নড়াইলে গৃহবধূর শরীরে অ্যাসিড নিক্ষেপ

নড়াইলের কালিয়া উপজেলার নড়াগাতি থানার মাউলী গ্রামে তানজিলা (২৮) নামের এক গৃহবধূকে শ্বশুর বাড়ির লোকজন অ্যাসিডে ঝলসে দিয়েছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। গতকাল শুক্রবার রাতে গুরুতর অবস্থায় ওই গৃহবধূকে খুলনা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে নেওয়া হয়।

তার মুখ ও বুক মারাত্মকভাবে ঝলসে গেছে বলে পরিবারের পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে।

স্থানীয় সূত্র জানায়, ১৩ বছর আগে নড়াইলের কালিয়া উপজেলার কাঠাদুরা গ্রামে কালাম পুলিশের ছেলে মনির মোল্লার সঙ্গে বিয়ে হয় পাশের মাউলী গ্রামের আজাহার শেখের মেয়ে তানজিলার। বিয়ের পর তাদের দু’টি সন্তান হয়। কিন্তু স্বামী মনির মোল্লা প্রায়ই নির্যাতন করতেন তানজিলার ওপর। একপর্যায়ে স্বামী মনিরের বিরুদ্ধে নারী নির্যাতন মামলা করেন স্ত্রী তানজিলা। এরপর তাদের মধ্যে ছাড়াছাড়ি হয়ে যায়। গত জুলাই মাসে তানজিলাকে ফুঁসলিয়ে আদালত থেকে মামলাটি প্রত্যাহার করান শ্বশুর বাড়ির লোকজন। এরপর তানজিলাকে শ্বশুর বাড়িতে ঠাঁই দিলেও টানা ১৬ দিন নির্যাতন করা হয়। একপর্যায়ে নির্যাতন সইতে না পেরে বাবার বাড়ি মাউলীতে ফিরে আসেন তিনি।

গতকাল শুক্রবার রাতে বাবার বাড়িতে ঘুমন্ত অবস্থায় তার গায়ে অ্যাসিড নিক্ষেপ করে দুর্বৃত্তরা। গভীর রাতে তাকে চিকিৎসার জন্য খুলনা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়। ঘটনার পরপরই অভিযুক্ত মনির তার বাবা-মা ও পরিবার বন্ধু নাজমুলসহ পালিয়ে যান। পুলিশ এ ঘটনায় তানজিলার স্বামী মনিরের বন্ধু নাজমুলের স্ত্রীকে আটক করেছে।

নড়াগাতি থানার ওসি মো. মাহাবুবুর রহমান কালের কণ্ঠকে বলেন, "এখনো কোনো এজাহার দাখিল হয়নি তাই কারো নাম বলা যাচ্ছে না। একজনকে আটক করা হয়েছে, বাকি যেসব সন্দেহভাজনরা পলাতক রয়েছেন তাদেরকে আটকের চেষ্টা চলছে। " 


মন্তব্য