kalerkantho


ভোলায় জলদস্যু সন্দেহে চার যুবক আটক

ভোলা প্রতিনিধি    

১৯ আগস্ট, ২০১৭ ১৮:০০



ভোলায় জলদস্যু সন্দেহে চার যুবক আটক

ভোলার মনপুরার মেঘনা নদীতে অভিযান চালিয়ে জলদস্যু সন্দেহে চার যুবককে আটক করেছে পুলিশ। এরা হলেন রাজন্দ্র চন্দ্র দাস (৩২), রতন চন্দ্র দাস (২০), বাসু দেব (২৮) ও আলাউদ্দিন (১৯)।

গতকাল শুক্রবার গভীর রাত থেকে আজ শনিবার বিকেল পর্যন্ত উপজেলার জাগলাচরসংলগ্ন মেঘনা নদী থেকে তাদেরকে আটক করা হয়।

আটককৃতদের বাড়ি নোয়াখালীর হাতিয়া এলাকায়। তাদেরকে মনপুরা থানায় জিজ্ঞাসাবাদ করা হচ্ছে।

মনপুরা থানার ওসি দায়িত্বে থাকা এসআই হাদিসুর রহমান জানান, শুক্রবার রাতে হাতিয়ার জলদস্যু বাহিনী জাগলাচরসংলগ্ন এলাকা থেকে এক জেলে মাঝিকে অপহরণ করে নিয়ে যায়। অপহৃত মাঝিকে ছাড়িয়ে আনতে জলদস্যু বাহিনী ৫০ হাজার টাকা মুক্তিপণ দাবি করে। এ খবর পেয়ে কলাতলীরচর পুলিশ তদন্তকেন্দ্রের পুলিশ শুক্রবার গভীর রাত থেকে আজ শনিবার বিকেল পর্যন্ত জাগলাচরসংলগ্ন মেঘনা নদীতে অভিযান চালিয়ে জলদস্যু সন্দেহে ওই চার যুবককে আটক করে।

উল্লেখ্য, শুক্রবার মনপুরার জাগলাচরসংলগ্ন মেঘনা নদীতে ইলিশ ধরার জন্য জাল ফেলেন  ফারুক মাঝি। রাত সাড়ে ৮টার দিকে আগে থেকে সেখানে ওত পেতে থাকা হাতিয়ার জলদস্যু বাহিনীর ১০-১২ জনের একটি দল দেশীয় অস্ত্রশস্ত্র নিয়ে জেলেদের চারদিক থেকে ঘিরে ফেলে। পরে জলদস্যুরা অস্ত্রের মুখে জেলেদের জিম্মি করে ফারুক মাঝির ট্রলার থেকে তার ছেলে নিকসন মাঝিকে অপহরণ করে নিয়ে যায়।

জলদস্যুরা নিকসন মাঝির মোবাইল ফোনে ফোন করে ৫০ হাজার টাকা মুক্তিপণ দাবি করে। মুক্তিপণের বিনিময়ে জেলেদের ছাড়িয়ে আনার জন্য বলে জলদস্যু বাহিনী। অপহৃত নিকসন মাঝি উপজেলা চেয়ারম্যান আড়তের বলে জানা গেছে।


মন্তব্য