kalerkantho


আশুলিয়ায় দুটি বাড়িতে ডাকাতি

নিজস্ব প্রতিবেদক, সাভার (ঢাকা)   

১৭ আগস্ট, ২০১৭ ২০:৩৫



আশুলিয়ায় দুটি বাড়িতে ডাকাতি

প্রতীকী ছবি

সাভার উপজেলার আশুলিয়া ইউনিয়নের কাঠগড়া এলাকায় এক ব্যবসায়ীর বাড়িতে দুর্ধর্ষ ডাকাতি এবং একই এলাকায় অপর এক বাড়িতে ডাকাতির চেষ্টাকালে প্রতিবেশীদের প্রতিরোধের মুখে ডাকাতরা একজনকে ছুরিকঘাত করো কিছু মালামাল নিয়ে পালিয়ে যাওয়ার ঘটনা ঘটেছে। বৃহস্পতিবার ভোর রাতে ডাকাতির এ ঘটনা দুটি ঘটে।

 

ডাকাতরা আশুলিয়া ইউনিয়নের কাঠগড়া দুর্গাপুর মন্ডলপাড়া এলাকার জমি ব্যবসায়ী লাবু মিয়ার বাড়িতে হানা দিয়ে নগদ প্রায় দুই লাখ টাকা, ৩৫ ভরি স্বর্ণালঙ্কার ও মূল্যবান মালামালসহ প্রায় ১৭ লাখ টাকার মালামাল লুটপাট করে নিয়ে গেছে।

এলাকাবাসী ও ডাকাত কবলিত বাড়িটির পরিবারের সদস্যরা জানায়, ভোর রাতে দুর্গাপুর মন্ডলপাড়া এলাকার জমি ব্যবসায়ী লাবু মিয়ার দোতলা বাড়ির রান্নাঘরের গ্রিল কেটে ৭/৮ সদস্যের একদল ডাকাত ঘরে প্রবেশ করে। ডাকাতরা গৃহকর্তা লাবু মিয়া ও তার স্ত্রী ফাহিমা বেগমকে পিটিয়ে আহত করে একটি কক্ষে আটকিয়ে রাখে।  

এরপর আলমারী ভেঙ্গে ব্যবসার জন্য রাখা নগদ এক লাখ ৯০ হাজার টাকা, ৩৫ ভরি স্বর্ণালঙ্কার, একটি ল্যাপটপ ও মূল্যবান  জিনিসপত্রসহ প্রায় ১৭ লাখ টাকার মালামাল লুটপাট করে পালিয়ে যায়। সকালে স্থানীয়রা খবর পেয়ে আহত ওই দম্পতিকে উদ্ধার করে প্রাথমিক চিকিত্সা সেবা দিয়েছে।  

অপরদিকে, প্রতিবেশীদের প্রতিরোধের মুখে আশুলিয়ার কাঠগড়া এলাকার জাহাঙ্গীর আলম নামের অপর এক ব্যবসায়ীর বাড়িতে হানা দিয়ে প্রতিবেশীদের প্রতিরোধের মুখে সামান্য মালামাল নিয়ে ওই ব্যবসায়ীকে ছুরিকাঘাতে আহত করে পালিয়ে গেছে ডাকাতরা। ঘটনাটি ঘটেছে আজ বৃহস্পতিবার ভোর রাতে কাঠগড়া উত্তরপাড়া এলাকায়।

এলাকাবাসী ও ভূক্তভোগি পরিবারের সদস্যরা জানায়, ভোর রাতে কাঠগড়া উত্তরপাড়া এলাকার ব্যবসায়ী জাহাঙ্গীর আলমের টিন সেড বাড়িতে ৭/৮ সদস্যের একদল ডাকাত হানা দেয়। ডাকাতরা ওই বাড়ির আত্মীয় সেজে ব্যবসায়ী জাহাঙ্গীর আলমের খালাতো ভাই মারুফকে দরজা খুলে দিতে বলে।

 

মারুফ দরজা খুলে দিলে ডাকাতরা ঘরে প্রবেশ করে জাহাঙ্গীর আলম, তাঁর বাবা সামছুল হক, ভাই মিলন মিয়া ও খালাতো ভাই মারুফ হোসেনকে অস্ত্রের মুখে জিম্মি করে দু’টি বিদেশি টর্চ লাইট, একটি মোবাইল ফোনসহ মূল্যবান মালামাল লুটপাট করে। ডাকাতির সময় টের পেয়ে প্রতিবেশীরা এগিয়ে আসলে ডাকাতরা ব্যবসায়ী জাহাঙ্গীর আলমকে ছুরিকাঘোতে আহত করে দ্রুত পালিয়ে যায়। সকালে ওই ব্যবসায়ীকে প্রাথমিক চিকিত্সা দেয়া হয়। জাহাঙ্গীর আলম জানান, কোরবানির ঈদ উপলক্ষে তিনি বেশ কয়েকটি গরু লালন পালন করছেন। ডাকাতরা হয়তো গরু নিয়ে যেতে এসেছিলো।  

সকালে খবর পেয়ে আশুলিয়া ইউনিয়ন পরিষদের ১ নং ওয়ার্ডের ইউপি সদস্য মোহাম্মদ আলী ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছেন। এসময় এ ইউপি সদস্য জানান, কাঠগড়া উত্তরপাড়া এলাকায় প্রায়ই রাস্তায় ডাকাতি হয়। এলাকাবাসী ও গার্মেন্ট শ্রমিকরা ডাকাতদের ভয়ে রাত জেগে পাহারা দিচ্ছে। ডাকাতদের বিরুদ্ধে পুলিশকে ব্যবস্থা নিতে তিনি অনুরোধ জানান।

আশুলিয়া থানার ওসি আব্দুল আউয়াল জানান, কাঠগড়া এলাকায় বৃহস্পতিবার ভোর রাতে কোনো বাড়িতে ডাকাতি হওয়ার খবর তার জানা নেই। কেউ অভিযোগ করলে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।  


মন্তব্য