kalerkantho


কুমিল্লা বিশ্ববিদ্যালয়ে

শোক দিবসে ক্লাস নেওয়া শিক্ষককে বাধ্যতামূলক ছুটি

কুমিল্লা বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিনিধি   

১৭ আগস্ট, ২০১৭ ২০:২৮



শোক দিবসে ক্লাস নেওয়া শিক্ষককে বাধ্যতামূলক ছুটি

ছবি : সংগৃহীত

শোক দিবসের আলোচনায় অংশ না নিয়ে নিজ বিভাগের শিক্ষার্থীদের ক্লাস নেওয়ার অভিযোগে বাধ্যতামূলক ছুটিতে পাঠনো হয়েছে কুমিল্লা বিশ্ববিদ্যালয়ের গণযোগাযোগ ও সাংবাদিকতা বিভাগের প্রভাষক মাহবুবুল হক ভুঁইয়া তারেককে। একই সঙ্গে ঘটনাটি তদন্তের জন্য কমিটি গঠন করা হয়েছে।

আজ বৃহস্পতিবার বিশ্ববিদ্যালয়ের রেজিস্ট্রার মোঃ মজিবুর রহমান মজুমদার স্বাক্ষরিত পৃথক দুটি অফিস আদেশের মাধ্যমে এ সিদ্ধান্ত জানানো হয়।

জানা যায়, গত ১৫ আগস্ট জাতীয় শোক দিবসের আলোচনা চলাকালীন প্রভাষক মাহবুবুল হক ভুঁইয়া তারেক বিভাগের প্রথম ব্যাচের শিক্ষার্থীদের ক্লাস নিয়েছেন বলে অভিযোগ তোলে বিশ্ববিদ্যালয় শাখা ছাত্রলীগ। এতে বঙ্গবন্ধুকে অবমাননা করা হয়েছে জানিয়ে প্রভাষক তারেকের বহিষ্কারের দাবি করে তারা।  

ঘটনার তদন্ত এবং বিশ্ববিদ্যালয়ের বিদ্যমান পরিস্থিতি বিবেচনা করে ঐ শিক্ষককে চলতি মাসের ২০ তারিখ থেকে আগামী মাসের ১৯ তারিখ পর্যন্ত বাধ্যতামূলক ছুটি দিয়েছে বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন। একই সঙ্গে বিশ্ববিদ্যলয়ের সিন্ডিকেট সদস্য প্রফেসর ডা: মোসলেহ উদ্দিন আহমেদকে আহ্বায়ক করে ৪ সদস্যের একটি তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়েছে।  

কমিটির অন্য সদস্যরা হলেন, রসায়ন বিভাগের প্রফেসর ড. মোহাম্মদ সৈয়দুর রহমান, শিক্ষক সমিতির সভাপতি ড. মোঃ আবু তাহের এবং সহকারি প্রক্টর মোঃ আমিনুল হক চৌধুরী। নির্দিষ্ট সময় উল্লেখ না করে স্বল্পতম সময়ের মধ্যে কমিটিকে প্রতিবেদন জমা দিতে বলা হয়।

এদিকে বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষের এ সিদ্ধান্তে সন্তুষ্ট হতে পারেনি ছাত্রলীগ। শাখা ছাত্রলীগ সভাপতি ইলিয়াস হোসেন সবুজ বলেন, প্রশাসন যে সিদ্ধান্ত নিয়েছে তা আমাদের দাবি অনুযায়ী হয়নি।

আমরা ঐ শিক্ষকের স্থায়ী বহিষ্কার চেয়েছিলাম। তবু্ও সাধারণ শিক্ষার্থীদের কথা চিন্তা করে আমরা এ সিদ্ধান্ত মেনে নিয়েছি।

বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসনের সিদ্ধান্ত সম্পর্কে জানতে চাওয়া হলে প্রভাষক মাহবুবুল হক ভুঁইয়া তারেক বলেন, বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন যে সিদ্ধান্ত নিয়েছে তা অনৈতিক। আমার প্রতি অবিচার করা হয়েছে।


মন্তব্য