kalerkantho


'ইখথায়োসিস ভুলগারিস' এ আক্রান্ত শাহাদাতের চিকিৎসা শুরু

ফেনী প্রতিনিধি    

১৬ আগস্ট, ২০১৭ ১৭:০৪



'ইখথায়োসিস ভুলগারিস' এ আক্রান্ত শাহাদাতের চিকিৎসা শুরু

ফেনীতে বিরল চর্মরোগ 'ইখথায়োসিস ভুলগারিস' এ আক্রান্ত শাহাদাত হোসেনকে ফেনী সদর হাসপাতালে চিকিৎসা প্রদান শুরু হয়েছে। সিভিল সার্জন ডা. হাসান শাহরিয়ার কবিরের নির্দেশে পাঁচ সদস্যের বিশেষজ্ঞ চিকিৎসকের সমন্বয়ে গঠিত মেডিক্যাল বোর্ড আজ বুধবার তার চিকিৎসা শুরু করে।

এর আগে ফেনীর একটি স্থানীয় অনলাইন গণমাধ্যম ও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে লেখালেখি হয় শাহাদাতকে নিয়ে।

পারিবারিক সূত্র জানায়, ফেনী সদরের ফরহাদনগর ইউনিয়নের চরকালিদাস গ্রামের খুরশিদ আলম আইয়ুব ও জাহেদা বেগমের ছেলে শাহাদাত হোসেন ২০০৩ সালে জন্ম নেয়। চিকিৎসকরা জানান,  শুরু থেকেই তার শরীরের চামড়ায় ফাটল (চিকিৎসা বিজ্ঞানের ভাষায় ইখথায়োসিস ভুলগারিস) দেখা দেয়। এর ফলে চামড়া কালচে হয়ে যায় ও ফেটে যায়। এটি বেশিরভাগ ক্ষেত্রে পুরো শরীরে ছড়িয়ে পড়ে। মা জাহেদা জানান, বিভিন্ন সময় চট্টগ্রাম মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে তাকে নিয়ে যাওয়া হলেও সেখানকার চিকিৎসকরা একে চর্মরোগ হিসেবে চিহ্নিত করে ওষুধ দেন। কিন্তু ওষুধ সেবনে এটি নিরাময় হয়নি। প্রায় এক যুগ ধরে নানারকম চিকিৎসা নিয়েও কোনও ফল হয়নি।

সম্প্রতি বিষয়টি ফেনীর স্থানীয় অনলাইন গণমাধ্যম 'নতুন ফেনী'তে উঠে আসে এবং স্থানীয় মুক্তচিত্র সাংবাদিক দুলাল তালুকদারও এ নিয়ে ফেসবুকে লেখালেখি করলে স্বাস্থ্য বিভাগের নজরে আসে শাহাদাত।

আজ  বুধবার সকালে সিভিল সার্জন ডা. হাসান শাহরিয়ার কবিরের নির্দেশে তাকে নিয়ে আসা হয় ফেনী সদর হাসপাতালে।

ফেনী সদর হাসপাতালের আবাসিক স্বাস্থ্য কর্মকর্তা (আরএমও ) ডা. অসীম কুমার সাহা জানান, পাঁচজন বিশেষজ্ঞ চিকিৎসক ডা. শহীদুল্লাহ দিদার, ডা. সাইফুর রহমান, ডা. অসীম কুমার সাহা. ডা. আব্দুল মান্নান ও ডা. ব্রজগোপাল পালের সমন্বয়ে গঠিত মেডিক্যাল বোর্ড আজ বুধবার শাহাদাতের বিভিন্ন পরীক্ষা-নিরীক্ষা সম্পন্ন করে  প্রাথমিকভাবে চিকিৎসা শুরু করেছে। তিনি জানান, এ রোগের জন্য হাসপাতালে ভর্তি থাকার প্রয়োজন নেই। নিয়মিত ওষুধ সেবন করলে এটি অনেকখানি নিরাময় হওয়া সম্ভব। ফেনী সদর হাসপাতাল থেকে এ ব্যাপারে সবরকম সহায়তা দেওয়া হবে বলে জানান তিনি।


মন্তব্য