kalerkantho


কক্সবাজার জেলায় এক বছরে ১৫ হাজার মামলার নিষ্পত্তি

নিজস্ব প্রতিবেদক, কক্সবাজার   

১৮ মার্চ, ২০১৭ ২২:১৮



কক্সবাজার জেলায় এক বছরে ১৫ হাজার মামলার নিষ্পত্তি

কক্সবাজার জেলা ও দায়রা জজ আদালতের সম্মেলন কক্ষে আজ শনিবার জেলার চীফ জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতের মাসিক পুলিশ-ম্যাজিস্ট্রেসী সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়। চীফ জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট মোহাম্মদ তৌফিক আজিজের সভাপতিত্বে মার্চ মাসের পুলিশ-ম্যাজিস্ট্রেসী সম্মেলনে ২০১৬ সনে পুলিশ ও বিচার বিভাগীয় ম্যাজিস্ট্রেটগণের যৌথ সমন্বয়ে জেলায় বিচারাধীন ১৫ হাজার (প্রায়) মামলা নিষ্পত্তির সফলতার বিবরণ তুলে ধরা হয়। উক্ত সভায় প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন জেলা ও দায়রা জজ জনাব মীর শফিকুল আলম।

জেলা জজ তাঁর বক্তৃতায় বিচার বিভাগীয় ম্যাজিস্ট্রেট ও পুলিশ বিভাগের ঐকান্তিক প্রচেষ্টায় বিচার প্রার্থী জনগণকে বিচার প্রক্রিয়ার সুফল প্রদান সম্ভব হয়েছে মর্মে ভবিষ্যতে এ গতিশীলতা বজায় রাখার আহ্বান জানান।

চীফ জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট মোহাম্মদ তৌফিক আজিজ স্বাগত বক্তব্যে বলেন, বিগত ২০১৬ সালের মামলার পরিসংখ্যান উল্লেখ করে জানান যে, উক্ত সালে চীফ জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতের আওতাধীন সকল আদালতে বিচারাধীন ২৭ হাজার ৩শ’ ৬৮টি মামলার পাশাপাশি দায়ের/প্রাপ্তি ঘটে ১৫ হাজার ১শ’ ৮১টি, যেখানে ৩টি চৌকি আদালতসহ জেলার সকল জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেটগণ নিষ্পত্তি করেন ১৪ হাজার ৯শ’ ৫৭টি মামলা।

তথাপি বছর শেষে ২৭ হাজার ৫শ’ ৯২টি মামলা বিচারাধীন থাকে। তিনি আরো জানান, জেলার ১০ জন জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট গড়ে প্রতিমাসে ১০৮টি চূড়ান্ত আদেশ ও বিবিধ নিষ্পত্তির পাশাপাশি প্রায় ১৮টি মামলার দোতরফা পূর্ণাঙ্গ রায় প্রদান করেন, যা প্রশংসনীয় ও বিচার বিভাগের একটি উজ্জল দৃষ্টান্ত। সিনিয়র জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট তামানড়বা ফারাহ’র সঞ্চালনায় অনুষ্ঠিত সভায় উপস্থিত ছিলেন জেলা আইনজীবী সমিতির সভাপতি মুহাম্মদ ইসহাক ও সাধারণ সম্পাদক জনাব জিয়াউদ্দিন আহমদ, জেলার পাবলিক প্রসিকিউটর মমতাজ আহম্মদসহ সহকারী পাবলিক প্রসিকিউটরগণ, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার জনাব মোহাম্মদ আফরুজুল হক টুটুল ও সকল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তাগণ, জেল সুপার বজলুর রহমান এবং সিভিল সার্জনের প্রতিনিধি ডা. মো. আলমগীর।

তাঁরা প্রত্যেকে সভার বিষয়বস্তুর উপর স্বীয় গুরুত্বপূর্ণ অভিমত প্রদান করেন। বর্তমানে কর্মরত সকল জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেটগণ সন্তোষজনক পরিমাণ মামলা নিষ্পত্তির পরও মামলা দায়েরের হার অত্র জেলায় বেশি হওয়ায় অধিকাংশ মাসেই কিছু কিছু করে বিচারাধীন মামলার সংখ্যা বৃদ্ধি পাচ্ছে মর্মে সভায় সকলকে অবহিত করা হয়। চীফ জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট মোহাম্মদ তৌফিক আজিজ মোট নিষ্পত্তির চেয়ে মামলা দায়েরের হার হ্রাসকরণের লক্ষ্যে সকল পর্যায়ের কর্মকর্তাগণকে মামলা দায়েরের বিষয়ে উৎসাহিত না করার এবং পক্ষগণকে বিকল্প বিরোধ নিষ্পত্তিতে উৎসাহিত করার আহ্বান জানান।

সভায় জেলার বিচারকগণের মধ্যে আরও উপস্থিত ছিলেন অতিরিক্ত জেলা ও দায়রা জজ মোহাম্মদ ওসমান গনি, অতিরিক্ত চীফ জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট মুহাম্মাদ মোশাররফ হোসাইন, যুগ্ম জেলা ও দায়রা জজ সালমা খাতুন ও ফখরুল আবেদীন, সিনিয়র জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট তৌহিদুল ইসলাম, সুশান্ত প্রসাদ চাকমা, মোঃ সিরাজ উদ্দিন, রাজিব রায়, মো. আলমগীর কবির, রাজিব কুমার দেব, মোঃ তারেক আজিজ ও সহকারী জজ নুসরাত জামান।


মন্তব্য