kalerkantho


লক্ষ্মীপুরে শিলাবৃষ্টিতে সয়াবিনের সর্বনাশ

লক্ষ্মীপুর প্রতিনিধি    

১৮ মার্চ, ২০১৭ ১৬:১০



লক্ষ্মীপুরে শিলাবৃষ্টিতে সয়াবিনের সর্বনাশ

'সয়াবিনের রাজধানী' খ্যাত লক্ষ্মীপুরে শিলাবৃষ্টিতে সর্বনাশের আশঙ্কা করছেন সেখানকার কৃষকরা। আজ শনিবার সকাল ১১টা থেকে দুপুর ২টা পর্যন্ত থেমে থেমে জেলার বিভিন্ন স্থানে ব্যাপক শিলাবৃষ্টি হচ্ছে।

এ রিপোর্ট লেখার সময় পর্যন্ত দমকা ও ঝোড়ো হাওয়াসহ শিলাবৃষ্টি হচ্ছে। সকাল থেকে আকাশ মেঘাচ্ছন্ন ছিল। বৃষ্টির কারণে রাস্তা-ঘাট ফাঁকা রয়েছে। শ্রমজীবী মানুষ চরম দুর্ভোগ পোহাচ্ছে।

জেলা কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তর সূত্র জানায়, জেলা সদর, রায়পুর, রামগঞ্জ, রামগতি ও কমলনগরে চলতি বছর ৫৫০৫ হেক্টর জমিতে সয়াবিন চাষাবাদ হয়। দেশের মোট উৎপাদনের প্রায় ৭০ ভাগ সয়াবিন এ জেলায় উৎপাদিত হয়। এ ফসলকে ঘিরে মৌসুমে প্রায় ৪০০ কোটি টাকা লেনদেন হয়। এ জন্য লক্ষ্মীপুরকে সয়াবিনের রাজধানীও বলা হয়।

রামগঞ্জ পৌরসভার প্রবীণ তিন ব্যক্তি জানান, আগে কখনও তারা এমন শিলাবৃষ্টি দেখেননি।

প্রতিটি শিলা বড় আকৃতির। টানা ঘণ্টাব্যাপী বৃষ্টির সঙ্গে আকাশ থেকে শিলা পড়েছে। এখন থেমে থেমে বৃষ্টি হচ্ছে। এ ব্যাপারে রায়পুর উপজেলার উপসহকারী কৃষি কর্মকর্তা মো. নুরুল মমিন বলেন, "এখন মাঠে ধান আর সয়াবিন রয়েছে। শিলাবৃষ্টিতে সয়াবিনের ক্ষতির আশঙ্কা রয়েছে। ফসলের মাঠে যদি পানি নিষ্কাষণের ব্যবস্থা থাকলে ক্ষয়ক্ষতি বেশি হবে না। তবে পানি জমে থাকলে সয়াবিন গাছের ‌ওপরের অংশ শুকিয়ে নিচের অংশে পচন ধরবে। ''

লক্ষ্মীপুর জেলা কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরের উপপরিচালক মো. গোলাম মোস্তফা বলেন, "বৃষ্টি শেষে কর্মকর্তারা মাঠে গিয়ে ক্ষতির পরিমাণ নিরূপণ করবেন। সংকট থেকে উত্তরণের জন্য কৃষকদের পরামর্শ দেওয়া হচ্ছে। "

 


মন্তব্য