kalerkantho


সুন্দরবনে দুই দস্যু আটক

বাগেরহাট, প্রতিনিধি   

১৬ মার্চ, ২০১৭ ২১:১২



সুন্দরবনে দুই দস্যু আটক

সুন্দরবনে র‌্যাব সদস্যরা অভিযান চালিয়ে জলদস্যু 'কবিরাজ বাহিনীর' দুই সদস্যকে আটক করেছে। আজ বৃহস্পতিবার দুপুরে র‌্যাব বরিশাল-৮ এর একটি দল সুন্দরবনের পশুর নদীর চারাখালী খাল এলাকা থেকে তাদের আটক করে। পরে বনতল্লাশী করে র‌্যাব সদস্যরা দস্যুদের ব্যবহৃত চারটি দেশি-বিদেশি আগ্নেয়াস্ত্র, দুটি ধারালো অস্ত্র এবং ১৩ রাউন্ড গুলি উদ্ধার করে।

আটক দস্যুরা হচ্ছেন. বাগেরহাট জেলার মোংলা উপজেলার আমড়াতলা গ্রামের মো. আজিজ শেখের ছেলে মো.সহিদুল শেখ (২২) এবং জেলার ফকিরহাট উপজেলার লকপুর গ্রামের শুকুর আলী ছেলে মো. সিরাজুল ইসলাম ওরফে নিকারী (৪৫)। এরা সুন্দরবনের জলদস্যু কবিরাজ বাহিনীর সদস্য বলে র‌্যাব সদস্যরা জানায়।

র‌্যাব বরিশাল-৮ এর উপঅধিনায়ক মেজর আদনান কবির জানান, জলদস্যু-বনদস্যু দমনে র‌্যাব সদস্যরা সুন্দরবনে অভিযান চালিয়ে যাচ্ছে। সুন্দরবনের চারাখালী খাল এলাকায় জলদস্যু কবিরাজ বাহিনীর একটি আস্তানা আছে, গোপন সূত্রে এমন-খবর পেয়ে র‌্যাব সদস্যরা আজ বৃহস্পতিবার দুপুরে সেখানে অভিযান চালায়।  

র‌্যাব সদস্যেদের উপস্থিতি টের পেয়ে দস্যুরা দৌড়ে পালানোর চেষ্টা করে। এ সময় র‌্যাব সদস্যরা ধাওয়া করে দুই দস্যুকে আটক করে। পরে বন তল্লাশি করে দস্যুদের ব্যবহৃত একটি বিদেশি একনালা বন্দুক, একটি বিদেশি কাটা রাইফেল, দুটি বিদেশি ওয়ান শুটারগ্যান, ১৩ রাউন্ড গুলি, দুটি দেশি তৈরি ধারালো রামদা এবং একটি মোবাইলফোন উদ্ধার করা হয়।
 
মেজর আদনান কবির আরও জানান,  জলদস্যু কবিরাজ বাহিনীর সদস্যরা সুন্দরবনে জেলেদের ট্রলারে ডাকাতি করে জাল-মাছ লুট এবং তাদের অপহরণ করে মুক্তিপণ আদায় করে আসছে।

মুক্তিপণ না পেলে দস্যুরা জেলেদের উপর অমানুষিক নির্যাতন চালায়। অভিযান চলাকালে ওই দুই দস্যু র‌্যাবের হাতে ধড়া পড়ে। গোলাগুলি ছাড়াই ওই দুই দস্যুকে ধড়া সম্ভব হয়েছে বলে তিনি জানান। আটক দস্যুদের সংশ্লিষ্ট থানায় হস্তান্তরের প্রস্তুতি চলছে।  


মন্তব্য