kalerkantho


ছেলের হাতে খুন হলেন পিতা

ঈশ্বরগঞ্জ (ময়মনসিংহ) প্রতিনিধি   

১১ মার্চ, ২০১৭ ১৯:৫৪



ছেলের হাতে খুন হলেন পিতা

ময়মনসিংহের গৌরীপুরে মাদকাসক্ত ছেলের রামদার কোপে গুরুতর আহত পিতা সাতদিন মৃত্যুর সাথে লড়াই করে চিকিৎসাধীন অবস্থায় আজ শনিবার সকালে ময়মনসিংহ মেডিক্যেল কলেজ হাসপাতালে মারা গেছেন। নিহত পিতার নাম মো. মজিবুর রহমান (৫০)।

তাঁর বাড়ি পৌরসভার সতিষা মহল্লায়। এ ঘটনায় আজ শনিবার বিকেলে অপর ছেলে বাদী হয়ে ভাইয়ের বিরুদ্ধে হত্যা মামলা করেছেন।

স্থানীয় সূত্র ও পুলিশ জানায়, মজিবুর রহমান একজন খুচরা পেট্রল ব্যবসায়ী। ছেলে সুজন মিয়া (২২) মাদকাসক্ত। ইয়াবাসহ বিভিন্ন মাদক সেবন ও বিক্রির সাথেও সে জড়িত। নিহত মজিবুরের ছোট ছেলে সুমন মিয়া (১৮) জানায়, কিছু দিন আগে তার বাবার কাছে টাকা চেয়ে ব্যর্থ হয়ে ঘরে জিনিসপত্র ভাঙচুরসহ পরিবারের অন্য সদস্যদের মারধর করে।  

এই অবস্থায় গত ৪ মার্চ শনিবার সুজন তাঁর বাবার কাছে ৫ হাজার টাকা দাবি করে। বাবা টাকা দিতে অস্বীকার করলে একটি রামদা দিয়ে উপর্যপুরি কোপাতে থাকে। এ অবস্থায় পরিবারের লোকজন প্রতিহত করে আহত মজিবুর রহমানকে উদ্ধার করে শঙ্কাটাপন্ন অবস্থায় ময়মনসিংহ মেডিক্যেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করায়।

সেখানে মজিবুর রহমানের চিকিৎসা চলছিল অচেতন অবস্থায়। আজ শনিবার সকালে তিনি মৃত্যু বরণ করেন। ঘটনার পর থেকে খুনি সুজন পলাতক রয়েছে।

গৌরীপুর থানার ওসি দোলোয়ার আহাম্মদ জানান, এ ঘটনায় নিহতের ছোট ছেলে সুমন মিয়া বাদী হয়ে মামলা করেছে। লাশ ময়নাতদন্তের জন্য মর্গে পাঠানো হয়েছে। হত্যাকারী সুজনকে গ্রেপ্তারের চেষ্টা চলছে।


মন্তব্য