kalerkantho


লক্ষ্মীপুরে শিক্ষকের প্রহারে ৩ ছাত্রী হাসপাতালে

লক্ষ্মীপুর প্রতিনিধি   

৭ মার্চ, ২০১৭ ১৯:০৩



লক্ষ্মীপুরে শিক্ষকের প্রহারে ৩ ছাত্রী হাসপাতালে

লক্ষ্মীপুরে মাদ্রাসা শিক্ষকের পিটুনিতে আহত তিনছাত্রীকে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। আজ মঙ্গলবার দুপুরে তাদেরকে চন্দ্রগঞ্জ ন্যাশনাল (প্রাঃ) হাসপাতাল এবং এসএমকে (প্রাঃ) হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। এরআগে গতকাল সোমবার দুপুরে চন্দ্রগঞ্জ থানার চরশাহী ইসলামীয়া আলীয়া মাদ্রাসায় এ ঘটনা ঘটে। এ ঘটনায় অভিযুক্ত শিক্ষক আব্দুল মালেককে শোকজ করা হয়েছে। আহত শিক্ষার্থীরা হল নবম শ্রেণির ছাত্রী ফাহমিদা আক্তার, শাহিনুর আক্তার ও জান্নাতুল নাঈমা।

জানা যায়, ঘটনার সময় চরশাহী ইসলামীয়া আলীয়া মাদ্রাসায় নবম শ্রেণির আরবি ক্লাস চলাকালীন সময়ে শ্রেণিকক্ষে কথা বলার অপরাধে শিক্ষক আব্দুল মালেক শিক্ষার্থী ফাহমিদা, শাহিনুর ও নাঈমাসহ আরো কয়েক ছাত্রীকে বেদম মারধর করেন। এসময় ৩ শিক্ষার্থী জ্ঞান হারিয়ে ফেললে তাদেরকে গ্রাম্য চিকিৎসক ডেকে এনে ব্যথানাশক ইনজেকশন পুশ করা হয়। পরে বাড়িতে তাদের অবস্থার অবনতি ঘটলে অভিভাবকরা ওই তিন ছাত্রীকে স্থানীয় হাসপাতালে ভর্তি করেন।

আহত ফাহমিদা আক্তারের মা’ আয়েশা সিদ্দিকা বলেন, শ্রেণিকক্ষে কথা বলার কারণে তাদেরকে বেদম প্রহার করেন। এতে ছাত্রীরা জ্ঞান হারিয়ে ফেলে। এখনও তারা স্বাভাবিক হয়নি।

ঘটনায় আহত ছাত্রীদের অভিভাবকরা বিচার দাবি করেন।  

এ ব্যাপারে চরশাহী ইসলামীয়া আলীয়া মাদ্রাসার অধ্যক্ষ আব্দুস সালাম বলেন, মাদ্রাসা পরিচালনা কমিটির সভাপতি লক্ষ্মীপুর সদর উপজেলার ইউএনও মোহাম্মদ নুরুজ্জামানের নির্দেশে অভিযুক্ত শিক্ষককে ৭ দিনের মধ্যে জবাব দাখিলের জন্য শোকজ নোটিশ করা হয়েছে। বিধি মোতাবেক ওই শিক্ষকের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।


মন্তব্য