kalerkantho


ভোটারদের টানতে পারেনি কেন্দ্র

জলঢাকা উপজেলা পরিষদের উপনির্বাচন নিরুত্তাপ ভোটগ্রহণ

নীলফামারী প্রতিনিধি    

৬ মার্চ, ২০১৭ ১৯:৪২



জলঢাকা উপজেলা পরিষদের উপনির্বাচন নিরুত্তাপ ভোটগ্রহণ

নীলফামারীর জলঢাকা উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান পদে আজ সোমবার অনুষ্ঠিত হয় উপনির্বাচন। নির্বাচনে নিরুত্তাপ ভোটগ্রহণে ভোটারদের টানতে পারেনি ভোটকেন্দ্র। ফলে বেশিরভাগ ভোটকেন্দ্র দিনভর প্রায় ফাঁকা ছিল।

উপজেলার কাঁঠালী ইউনিয়নের পশ্চিম কাঁঠালী গ্রামের নারী কৃষি শ্রমিক সব্যা রাণী রায়কে (৪০) দুপুর দেড়টার দিকে দেখা গেছে বোরো আবাদের জমিতে নিরানীর কাজ করতে। এ সময় তিনি বলেন,"এইবার কোনও প্রার্থী ভোট চাবার আইসে নাই হামারঠে (আমাদের কাছে)। মুই ভাবেছ ওমার তেম ভোটের দরকার নাই, এই জন্য ভোট দিবার যাও নাই। " তিনি জানান, ভোট আসলেই প্রার্থীসহ পক্ষের লোকজন এলাকায় ব্যাপক প্রচার প্রচারণায় নামেন। দলে দলে এসে ভোটারদের ভোট প্রার্থনা করেন। কিন্তু এবারের ভোটে তেমন দেখা যায়নি।

একই সময় ওই গ্রামের মিনতি বালা রায় (৫০) ও ললিতা বালা রায় (৪৫) একই কথা জানান। তারা বলেন,"হামেরা এলাও যাই নাই ভোট দিবার।

কাজ শ্যাষ করি সময় পাইলে এলায় যামো। না পাইলে যামো না। " তারা জানান, এবারের ভোটের তেমন  জোর নেই। কোনও প্রার্থী বা পক্ষের লোক গ্রামে আসেনি ভোট চাইতে। প্রচারণাও তেমন ছিল না। এ কারণে ভোট উৎসব ভোটকেন্দ্রে টানতে পারেনি তাদেরকে।

উপজেলার খুটামারা ইউনিয়নের হরিশচন্দ্র পাঠ সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় ভোটকেন্দ্র। বেলা সাড়ে ১১টায় দেখা গেছে প্রায় ভোটারবিহীন। ভোটকেন্দ্রের বাইরেও সমাগম নেই ভোটারদের। ওই কেন্দ্রের প্রিসাইডিং কর্মকর্তা মনোয়ার হোসেন জানান, মোট দুই হাজার ৬১৮ ভোটের মধ্যে ১৯০ ভোট পড়েছে। এ সময় ওই কেন্দ্রে ভোট দিতে আসা হরিশ চন্দ্র পাঠ ঢুলিয়া গ্রামের লেবু হোসেন (৫০) বলেন, "প্রচার প্রচারণার অভাবে এবারের ভোট আকৃষ্ট করতে পারেনি ভোটারদেকে। প্রতিদ্বন্দ্বী তিন প্রার্থীর কেউ ভোট চাইতে আসেনি এলাকায়। এ কারণে ভোটাররা কম আসছেন ভোট কেন্দ্রে। "

জেলা নির্বাচন কর্মকর্তা মো. জিলহাজ উদ্দিন জানান, উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান পদের উপ নির্বাচনে ৮৩টি কেন্দ্রে মোট ভোটার সংখ্যা দুই লাখ ৩০ হাজার ৫৯৪। ২০১৬ সালের ২৮ মে উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান আব্দুল ওয়াহেদ বাহাদুর ভাইস চেয়ারম্যান পদ থেকে পদত্যাগ করে পৌর মেয়র পদে নির্বাচন করার কারনে পদটি শুণ্য হয়। বিকেল সাড়ে ৪টার দিকে তিনি বলেন, "ভোটার উপস্থিতি কম হলেও শান্তিপূর্ণ পরিবেশে সুষ্ঠু নির্বাচন সম্পন্ন হয়েছে। কোথাও কোনো অপ্রীতিকর ঘটনার খবর পাওয়া যায়নি। "


মন্তব্য