kalerkantho


শ্বশুরবাড়িতে জামাইয়ের লাশ, স্ত্রীকে জিজ্ঞাসাবাদ

কুমিল্লা (দক্ষিণ) প্রতিনিধি   

৫ মার্চ, ২০১৭ ২১:৩৩



শ্বশুরবাড়িতে জামাইয়ের লাশ, স্ত্রীকে জিজ্ঞাসাবাদ

কুমিল্লার মনোহরগঞ্জে শ্বশুরবাড়ি থেকে মো. ইউছুফ হোসেন (৩০) নামে এক যুবকের লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ। আজ রবিবার দুপুর ২টার দিকে উপজেলার সরসপুর গ্রামের মৃত সফিক উল্লার বাড়ি থেকে ইউছুফের লাশ উদ্ধারের পর বিকেলে কুমিল্লা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালের মর্গে পাঠানো হয়। এ ঘটনায় ইউছুফের স্ত্রী রাবেয়া বেগমকে থানায় নিয়ে জিজ্ঞাসাবাদ করেছে পুলিশ।
 
নিহত ইউছুফ লক্ষ্মীপুরের রামগতি উপজেলার রামগতি গ্রামের মৃত হাবিব উল্লার ছেলে।

নিহতের স্ত্রী রাবেয়া বেগমের ভাষ্য, আমার স্বামী প্রায় এক মাস আগে রাজমিস্ত্রীর কাজের উদ্দেশ্যে ঢাকায় যায়। রবিবার সকালে ঘুম থেকে উঠে দেখি তিনি (ইউছুফ) আমাদের ঘরের সামনের আম গাছের ডালে গলায় ফাঁস দেওয়া অবস্থায় ঝুলে আছে। তবে এ সময় তাঁর পা ছিলো মাটিতেই। এ দৃশ্য দেখে আমি চিৎকার করলে আমার মা হারিচা খাতুনসহ বাড়ির লোকজন ছুঁটে এসে পুলিশে খবর দেন।

রাবেয়া বলেন, আমরা জানি আমার স্বামী ঢাকায়, কিন্তু তিনি কখন বাড়ি এলেন, আর কখন ফাঁসি দিলেন এ ব্যাপারে কিছুই জানি না।

পুলিশ জানায়, লাশটি উদ্ধার করার আগে দেখা গেছে ঝুলন্ত অবস্থায় ওই ব্যক্তির পায়ের বেশিরভাগ অংশ ছিলো মাটিতেই। এছাড়া গলায় ফাঁস দিয়ে আত্মহত্যা করার তেমন কোন লক্ষণও দেখা যায়নি।

স্থানীয় সূত্র জানায়, সরসপুর গ্রামের মৃত সফিক উল্লার মেয়ে রাবেয়া বেগমের সঙ্গে বিয়ের পর প্রায় ১২ বছর ধরে স্ত্রী, সন্তান নিয়ে শ্বশুরবাড়িতে বাস করছিলেন ইউছুফ হোসেন।

এ ব্যাপারে সন্ধ্যায় মনোহরগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোহাম্মদ সামসুজ্জামান কালের কণ্ঠকে বলেন, লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য মর্গে প্রেরণ করা হয়েছে। এ ঘটনায় থানায় একটি অপমৃত্যুর মামলা হয়েছে।

ওসি সামসুজ্জামান জানান, ওই ব্যক্তির মৃত্যুর ঘটনাটি নিয়ে পুলিশের তদন্ত চলছে। এছাড়া ময়নাতদন্ত প্রতিবেদন পাওয়ার পর প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়া হবে বলেও জানান তিনি।

 


মন্তব্য