kalerkantho


ভাণ্ডারিয়ায় তরুণীকে ধর্ষণের দায়ে চাচাতো ভাইয়ের যাবজ্জীবন

আঞ্চলিক প্রতিনিধি, পিরোজপুর   

৫ মার্চ, ২০১৭ ১৬:৪০



ভাণ্ডারিয়ায় তরুণীকে ধর্ষণের দায়ে চাচাতো ভাইয়ের যাবজ্জীবন

পিরোজপুরের ভাণ্ডারিয়ায় এক প্রতিবন্ধী তরুণীকে(১৪) ধর্ষণের দায়ে সুজন হাওলাদার (৩১) নামে এক যুবককে যাবজ্জীবন কারাদণ্ড দিয়েছেন আদালত। একই সঙ্গে তাকে আরও ২০ হাজার টাকা জরিমানা ও অনাদায়ে আরও ছয় মাসের কারাদণ্ড দেওয়া হয়।

আজ রবিবার দুপুরে নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইবুনাল- ২ এর বিচারক মো. জিল্লুর রহমান এ দণ্ডাদেশ দেন।

দণ্ডিত সুজন উপজেলার ইকড়ি ইউনিয়নের আতরখালী গ্রামের দেলোয়ার হাওলাদারের ছেলে। রায় ঘোষণার সময় সে আদালতে উপস্থিত ছিল।  

আদালত সূত্রে জানা গেছে, পিরোজপুরের ভান্ডারিয়া উপজেলার আতরখালী গ্রামে ২০১৪ সালের ১০ আগষ্ট শারিরীক প্রতিবন্ধী এক তরুণীকে (১৪) ঘরে একা পেয়ে বখাটে চাচাতো ভাই সুজন হাওলাদার তাকে জোরপূর্বক ধর্ষণ করে। এ সময় মেয়েটির বাবা ও মা কাজে বাইরে ছিলেন। মেয়েটির আর্ত চিতকারে প্রতিবেশীরা এগিয়ে আসলে ধর্ষক সুজন পালিয়ে যায়। পরে পরিবারের সদস্য ও প্রতিবেশীরা মেয়েটিকে গুরুতর অবস্থায় উদ্ধার করে ভাণ্ডারিয়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে  ভর্তি করে। পরে তাকে আশঙ্কাজনক অবস্থায় বরিশাল শেরে বাংলা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে স্থানান্তর করা হয়। সেখানে বেশ কিছুদিন চিকিৎসার পর নির্যাতিত কিশোরী সুস্থ হয়ে ওঠে।

এ ঘটনায় প্রতিবন্দী কিশোরীর বাবা ভাণ্ডারিয়া থানায় মামলা দায়ের করলে পুলিশ অভিযুক্ত চাচাতো ভাই সুজনকে গ্রেপ্তার করে আদালতে সোপর্দ করে। আটকের পর থেকেই লম্পট সুজন কারাগরে ছিল। দীর্ঘদিন শুনানির পর আজ রবিবার আদালত আসামিকে এ সাজা দেন।

 

 


মন্তব্য