kalerkantho


দিনাজপুর মেডিক্যালে ইন্টার্ন চিকিৎসকরদের ৭২ ঘণ্টা ধর্মঘট শুরু

দিনাজপুর প্রতিনিধি    

৪ মার্চ, ২০১৭ ২০:৪১



দিনাজপুর মেডিক্যালে ইন্টার্ন চিকিৎসকরদের ৭২ ঘণ্টা ধর্মঘট শুরু

রোগীর সাথে অপ্রীতিকর ঘটনার জেরে বগুড়ার শহীদ জিয়াউর রহমান মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালের ৪জন ইন্টার্ন চিকিৎসকের (গৃহিত শাস্তিমূলক ব্যবস্থা) বদলির আদেশ প্রত্যাহারের দাবিতে আজ শনিবার সকাল থেকে ৭২ ঘণ্টার কর্মবিরতি শুরু করেছে দিনাজপুর মেডিক্যাল কলেজের ইন্টার্নি চিকিৎসকসহ (মেডিক্যাল) শিক্ষার্থীরা। সকাল থেকে কাজে যোগ দেননি প্রায় দেড়শত ইন্টার্ন (শিক্ষানবীশ) চিকিৎসক। ফলে রোগীর চিকিৎসা দিতে হিমশিম খাচ্ছেন নিয়মিত চিকিৎসকরা। অন্যদিকে (আজ) দুপুর পর্যন্ত ৬জন রোগী মারা গেছে বলে জানা গেছে।

দিনাজপুর মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালের ইন্টার্ন চিকিৎসক এস এম আসফিকার শামস জানান, স্বজনের সাথে ইন্টার্ন চিকিৎসকের অপ্রীতির ঘটনার জেরে ওই আত্বীয়ের চিকিৎসাধীন রোগীর মৃত্যু ঘটনায় বগুড়ার শহীদ জিয়াউর রহমান মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালের ৪জন ইন্টার্ন চিকিৎসকের বিরুদ্ধে শাস্তিমূলক বিভাগীয় ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে। ৪ জন ইন্টার্ন চিকিৎসকের বিরুদ্ধে স্থহিতাদেশসহ বদলীর আদেশ প্রত্যাহারের দাবিতে আজ শনিবার সকাল ৮টা থেকে ৭২ ঘণ্টার কর্মবিরতি শুরু করেছেন হাসপাতালের দেড়শত ইন্টার্ন চিকিৎসক। আদেশ প্রত্যহারের দাবিতে (দুপুরে) মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালের সামনে ঘণ্টাব্যাপি মানববন্ধন কর্মসূচি পালন করেছে তারা। সংহতি জানিয়ে এতে অংশ নিয়েছে মেডিক্যাল কলেজের শিক্ষার্থীরা। দাবি পূরণ করা না হলে পরবর্তীতে আরো কঠোর কর্মসূচিতে যাবেন তারা। পাশাপাশি কর্মস্থলে চিকিৎসকদের নিরাপত্তার দাবি জানিয়েছেন তিনি।

অন্যদিকে রোগীর স্বজনরা জানান, কিছুদিন আগে ভর্তি হলেও প্রয়োজনীয় চিকিৎসা এবং চিকিৎসা সংক্রান্ত পরামর্শ পাননি তারা।

তার ওপর ইন্টার্ন চিকিৎসকদের ধর্মঘটে রোগীর ভবিষৎ নিয়ে শংকায় পড়েছেন তারা।  

এদিকে দুপুর পর্যন্ত হাসপাতালের বিভিন্ন বিভাগে ভর্তি ৫৩৬জন রোগীর মধ্যে ৬জন মারা গেছে। গতকাল শুক্রবার ৪৯৯জন রোগীর মধ্যে সারাদিনে মারা গেছেন ৭জন রোগী। আজ সকাল থেকে আকষ্মিক ইন্টার্ন চিকিৎসকের কর্মবিরতির (ধর্মঘট) কর্মসূচিতে ভর্তি রোগীদের চিকিৎসায় সার্বিক তদারকি ব্যবস্থাপত্রসহ দেওয়াসহ প্রয়োজনীয় চিকিৎসা দিতে হিমশিম খাচ্ছেন নিয়মিত চিকিৎসকরা। চিকিৎসা সেবায় বিঘ্ন ঘটছে বলে স্বীকার করেছেন সার্জারি বিভাগের সহকারি রেজিস্টার ডা. তৌহিদ আলম।
 
হাসপাতালের ভারপ্রাপ্ত পরিচালক (সহকারী পরিচালক অর্থ ও ভান্ডার) ডাঃ সরল চন্দ্র রায় জানান, ধর্মঘটের ফলে সংকট এবং উদ্ভুদ পরিস্থিতি সামাল দিতে বিভাগীয়সহ অন্যান্য চিকিৎসকদের সাথে পরামর্শক্রমে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নিচ্ছেন তারা। রোগীর সেবায় চিকিৎসা কার্যক্রম সচল রাখতে ধর্মঘটি ইন্টার্ন চিকিৎসকদের দীর্ঘ মেয়াদি কর্মসূচিতে জরুরি ইউনিট খোলার পরামর্শ দিচ্ছেন তিনি।


মন্তব্য