kalerkantho


শিক্ষার্থীদের পাঠ্য বইয়ের বাইরেও বই পড়তে হবে : সংস্কৃতিমন্ত্রী

নীলফামারী প্রতিনিধি    

৩ মার্চ, ২০১৭ ১৯:৪০



শিক্ষার্থীদের পাঠ্য বইয়ের বাইরেও বই পড়তে হবে : সংস্কৃতিমন্ত্রী

"আমাদের সন্তানদের প্রকৃত মানুষ হিসেবে তৈরি করতে পাঠ্য পুস্তকের বাইরেও বই পড়ার সুযোগ করে দিতে হবে। সঠিক দায়িত্ব পালন করতে না পারলে আমাদের সন্তানরা প্রকৃত মানুষ হতে পারবে না।

"

আজ শুক্রবার বেলা সাড়ে ১১টার দিকে নীলফামারী শহরে নুতন দ্বি-মুখী উচ্চ বিদ্যালয় মাঠে আয়োজিত তিন দিনব্যাপী মাধ্যমিক শিক্ষা মেলার উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে এসব কথা বলেন সংস্কৃতিমন্ত্রী আসাদুজ্জামান নূর।

মন্ত্রী বলেন, "আমাদের সময় ছিল স্কুল আনন্দের জায়গা, স্কুল সময়টা আনন্দে কাটাতাম। স্যাররা শাসন করতেন, আদরও করতেন। আনন্দময় পরিবেশে থেকে লাইব্রেরি থেকে গল্পের বই, কবিতার বই, উপন্যাস সংগ্রহ করে পড়তাম। স্কুলে ফুলের বাগান, খেলাধুলা করার প্রতিযোগিতা হতো আমাদের মধ্যে। আবৃত্তি, অভিনয়, কবিতা লেখার প্রতিযোগিতা ছিল। বিভিন্ন সময় সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানে আমরা সবাই যোগ দিতাম। এতে একজন শিক্ষার্থীর মানবিক বিকাশ ঘটতো। কিন্তু এখন সে লেখাপড়া যান্ত্রিকে পরিণত হয়েছে।

শিক্ষক, অভিভাবক, শিক্ষার্থী মেতে উঠেছেন গ্রেড পাওয়ার প্রতিযোগিতায়। পাঠ্যপুস্তকের বাইরে বই পড়ার সময় তাদের নেই। মানবিক বিকাশ না হলে সে (শিক্ষাথী) প্রকৃত মানুষ হতে পারবে না।

সংস্কৃতিমন্ত্রী বলেন,"আইনস্টাইন একজন বড় বিজ্ঞানী হয়েও বেহালা বাজাতেন। এতবড় একজন বিজ্ঞানীর অনেক কাজের চাপ থাকার পরও তিনি বেহালা বাজানোর সময় পেয়েছেন। আর আমাদের সন্তানদের লেখাপড়া করাতে গিয়ে বলছি তার একটি গল্পের বই পড়ার সময় নেই। " এ সময় শিক্ষার্থীদের বই পড়া ও সাংস্কৃতিক চর্চার তাগিদ দেন তিনি।

নীলসাগর গ্রুপের অর্থায়নে বেসরকারি সংস্থা ভাব বাংলাদেশ ও ইউএসএস'র আয়োজনে মেলার উদ্বোধনী সভায় সভাপতিত্ব করেন নীলফামারী নুতন দ্বি-মুখী উচ্চ বিদ্যালয়ের সভাপতি ও নীলফামারী পৌর মেয়র দেওয়ান কামাল আহমেদ। এ সময় বক্তব্য দেন জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক মমতাজুল হক, সদর উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান আবুজার রহমান, ভাব বাংলাদেশের কান্ট্রি ডিরেক্টর অধ্যাপক ড. জসিমউজ জামান, নীলসাগর ক্যাডেট একাডেমির সভাপতি শিক্ষাবিদ আফজালুল হক, ইউএসএস'র নির্বাহী পরিচালক আলাউদ্দীন আলী প্রমুখ।

এর আগে মন্ত্রী মেলায় অংশ নেওয়া বিভিন্ন বিদ্যালয়ের ১২টি স্টল পরিদর্শন করেন। পরে ৫৮ লাখ ১৮ হাজার ২৮৭ টাকা ব্যয়ে শিক্ষা প্রকৌশল অধিদপ্তরের অধীনে নুতন দ্বি-মুখী উচ্চ বিদ্যালয়ের একাডেমিক ভবন নির্মাণ কাজের ফলক উম্মোচন করেন। বিকেলে মন্ত্রী স্থানীয় নীলসাগর চত্বরে জেলা সদরের স্বেচ্ছাসেবী সংগঠন ভিশন ২০২১ এর একটি সমাবেশ ও বনভোজনে অংশগ্রহণ করেন।

 


মন্তব্য