kalerkantho


সুরঞ্জিতের শোকসভায় মানুষের ঢল

সুনামগঞ্জ প্রতিনিধি   

১ মার্চ, ২০১৭ ২৩:৪০



সুরঞ্জিতের শোকসভায় মানুষের ঢল

সুরঞ্জিত সেনগুপ্তের জন্মভিটা দিরাইয়ে অনুষ্ঠিত শোকসভায় বক্তারা বলেছেন, সুরঞ্জিত সেনগুপ্ত ছিলেন সংসদীয় গণতন্ত্রের উজ্জ্বল নক্ষত্র। তিনি সংসদ অধিবেশনে কথা বললে সংসদে প্রাণ থাকতো, না হলে সংসদকে নিষ্প্রাণ মনে হতো। শুধু বাংলাদেশ নয় বিশ্বের সংসদীয় গণতান্ত্রিক রাজনীতি ও ইতিহাসের এক অধ্যায়ের নাম সুরঞ্জিত সেনগুপ্ত।

আজ বুধবার বিকেলে দিরাই বিএডিসি মাঠে উপজেলা আওয়ামী লীগ আয়োজিত শোকসভায় এসব কথা বলেন বক্তারা। দুপুর আড়াইটায় শুরু হওয়া শোকসভা শেষ হয় সন্ধ্যা সাড়ে ৬টায়। শোকসভায় কেন্দ্রীয় ও স্থানীয় নেতৃবৃন্দসহ সুরঞ্জিত সেনগুপ্তের স্ত্রী ড. জয়া সেনগুপ্ত ও পুত্র সৌমেন সেন গুপ্ত বক্তব্য রাখেন।

দিরাই উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি আছাব উদ্দিন সরদার ও সাংগঠনিক সম্পাদক অ্যাডভোকেট সোহেল তালুকদারের সঞ্চালনায় অনুষ্ঠিত শোকসভায় প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখেন কেন্দ্রীয় আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক আহমদ হোসেন। বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন সাবেক স্বরাষ্ট্রপ্রতিমন্ত্রী শামছুল হক টুকু এমপি, সুনামগঞ্জ-৫ আসনের সাংসদ মুহিবুর রহমান মানিক, মোয়াজ্জেম হোসেন রতন এমপি, মজিদ খান এমপি, সংরক্ষিত সংসদ সদস্য অ্যাডভোকেট শামছুন্নাহার রব্বানী, জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ব্যারিস্টার এম. এনামুল কবির ইমন, অ্যাডভোকেট শামীমরা শাহরিয়ার প্রমুখ।

প্রধান অতিথির বক্তব্যে কেন্দ্রীয় আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক আহমদ হোসেন বলেন, সুরঞ্জিত সেনগুপ্ত এই ভাটি এলাকা থেকে উঠে গিয়ে রাজনীতির শীর্ষ শিখরে উপস্থিত হয়ে ছিলেন। মৃত্যুর আগ পর্যন্ত এই মানুষটি কেবল রাজনীতিই করে গেছেন। তার দীর্ঘ ও বর্ণাঢ্য রাজনৈতিক জীবনে নিজেকে একটি প্রতিষ্টানে পরিণত করেছিলেন।

সংসদীয় রাজনীতির এই নক্ষত্রকে জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানও স্নেহ করতেন। তাই স্বাধীনতা পরবর্তী সংসদে তার যাদুকরী কথার জন্য তাকে সংসদে বিশেষ ফ্লোর দিয়ে থাকতেন তিনি। স্বাধীনতা পরবর্তী প্রতিটি সংসদেই তিনি কথার যাদুতে সংসদ মাতিয়ে রাখতেন। তিনি সংসদে উপস্থিত না থাকলে, কথা না বললে নিষ্প্রান মনে হতো সংসদকে।

সাবেক স্বরাষ্ট্রপ্রতিমন্ত্রী শামছুল হক টুকু বলেন, আইন, বিচার ও সংসদীয় কমিটির সদস্য হওয়ার সুবাদে দাদার সান্নিধ্য পেয়েছিলাম। পৃথিবীর সংসদীয় রাজনীতির উজ্জ্বল নক্ষত্র সুরঞ্জিত সেনগুপ্ত নিজেকে সংসদীয় রাজনীতির এক নতুন উচ্চতায় আসীন করেছিলেন। আমাদের সামনে ছিলেন এই ধারার রাজনীতির এক মহান শিক্ষক।

শোকসভায় সুরঞ্জিত সেনগুপ্তের নির্বাচনী এলাকা দিরাই শাল্লাসহ পুরো জেলার বিভিন্ন এলাকা থেকে অবরোধের মধ্যেও হাজার হাজার মানুষ অংশ নেন। বক্তারা স্মৃতিচারণ করার সময় অনেক দর্শককে কাদতে দেখা যায়।


মন্তব্য