kalerkantho


চট্টগ্রামে রাস্তায় ব্যারিকেড দিয়ে শ্রমিকদের ধর্মঘট

নিজস্ব প্রতিবেদক, চট্টগ্রাম    

১ মার্চ, ২০১৭ ১২:২৪



চট্টগ্রামে রাস্তায় ব্যারিকেড দিয়ে শ্রমিকদের ধর্মঘট

চট্টগ্রাম নগরীর বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ মোড়ে ব্যারিকেড দিয়ে ধর্মঘট পালন করছে পরিবহন শ্রমিকরা। দুই বাস চালককে দেওয়া সাজার প্রতিবাদে পরিবহন শ্রমিকদের  সংগঠনগুলোর ডাকা ধর্মঘট দ্বিতীয়দিনের মতো অব্যাহত রয়েছে।

ধর্মঘটের দ্বিতীয় দিনে আজ বুধবার নগরীর কোথাও কোনও গণপরিবহন চলাচল করতে দেখা যায়নি। আন্দোলনরত শ্রমিকরা ব্যক্তি মালিকানাধীন গাড়ি এমনকি রিকশা চলাচলেও বাধা দিয়েছে নগরীর বিভিন্ন স্থানে।

সকাল থকে দুয়েকটি গাড়ি চলাচলের চেষ্টা করলেও আন্দোলনরত শ্রমিকরা তা থামিয়ে যাত্রীদের নামিয়ে দেয়। তারা চালককে নামিয়ে দিয়ে গাড়ি চলাচল বন্ধ রাখতে বাধ্য করে। এ সময় শ্রমিকদের সঙ্গে যাত্রীদের বাকবিতণ্ডা হয়। নগরীর দেওয়ানহাট ব্রিজ, শেখ মুজিব রোড, নিচতলা মোড়, চাঁন্দগাও, বহদ্দারহাট মোড়, কাপ্তাই রাস্তার মাথা, ষোলশহর দুই নম্বর গেইট, অক্সিজেন মোড়সহ বিভিন্ন এলাকায় সড়ক অবরোধ করে পরিবহন শ্রমিকরা। তবে এ সময় পুলিশকে নীরব ভূমিকা পালন করতে দেখা যায়। লালখানবাজারে এক চালক শ্রমিকদের হাতে মারধরের শিকার হয়েছেন বলেও জানা গেছে।

এদিকে, নগরীর বাদুরতলা এলাকায় একটি সিএনজি অটোরিকশা ভাঙচুর করেছে বিক্ষুব্ধ শ্রমিকরা।

এ সময় সিএনজি চালককেও মারধর করা হয়।

নগর পুলিশের উপ-কমিশনার (ট্রাফিক) সুজায়েত ইসলাম জানান, পরিবহন ধর্মঘটের কারণে দ্বিতীয় দিনের মতো নগরীতে গণপরিবহন চলাচল বন্ধ রয়েছে। সকাল থেকেই কোনও গাড়ি চলাচল করেনি। এ ছাড়া দূরপাল্লার বাস চলাচল বন্ধ রয়েছে। অভ্যন্তরীণ রুটেও বাস চলাচল করছে না। অপরদিকে, ধর্মঘটের কারণে গণপরিবহন চলাচল না করায় অবর্ণনীয় দুর্ভোগে পড়েছে অফিসগামীসহ বিভিন্ন শ্রেণি পেশার মানুষ। অনেককে রিকশা, সিএনজি বা পায়ে হেঁটে গন্তব্যস্থলে পৌঁছাতে দেখা গেছে।

ধর্মঘটে চট্টগ্রাম বন্দরের অভ্যন্তরে জাহাজে পণ্য ওঠা-নামা অব্যাহত থাকলেও জেটি থেকে পণ্য পরিবহন বন্ধ রয়েছে। বন্দরের ভেতর পণ্যবোঝাই করে শত শত ট্রাক, লরি গন্তব্যে রওনা হওয়ার অপেক্ষায় রয়েছে বলে জানান সংশ্লিষ্টরা।

 

 


মন্তব্য