kalerkantho


বিয়ের এক মাস না যেতেই যৌতুকের বলি রোদেলা!

নিজস্ব প্রতিবেদক, ফরিদপুর    

২৮ ফেব্রুয়ারি, ২০১৭ ১৫:৪৬



বিয়ের এক মাস না যেতেই যৌতুকের বলি রোদেলা!

ফরিদপুরে বিয়ের এক মাস না পেরুতেই যৌতুকের বলি হলেন নববধূ রোদেলা (১৮)। গতকাল সোমবার রাতে শহরের গোয়ালচামট নতুন বাজার এলাকায় এ ঘটনা ঘটে।

নিহত রোদেলা খানম শহরের আলীপুর খাঁ পাড়া এলাকার শওকত হোসেন খানের মেয়ে। তিনি ফরিদপুরের সারদা সুন্দরী মহিলা কলেজের ইংরেজি অনার্স প্রথম বর্ষের ছাত্রী ছিলেন।

পুলিশ ও পারিবারিক সূত্রে জানা গেছে, গত ১৩ জানুয়ারি শহরের গোয়ালচামট নতুন বাজার এলাকার মমিনুর রহমান সেন্টুর ছেলে আসাদুল সোহানের (২৮) সঙ্গে বিয়ে হয় রোদেলার। গতকাল সোমবার দিবাগত রাত ১১টার দিকে শ্বশুরবাড়ি থেকে রোদেলাকে মৃত অবস্থায় ফরিদপুর মেডিক্যাল কলেজ  হাসপাতালে আনা হয়। স্বামী, শাশুড়ি ও ননদ মিলে রোদেলাকে হত্যা করেছে বলে নিহত রোদেলার পরিবার অভিযোগ করেছে। অভিযোগ পেয়ে পুলিশ আজ মঙ্গলবার সকালে রোদেলার লাশ থানায় নিয়ে আসে।

নিহত রোদেলার পরিবারের অভিযোগ, বিয়ের পর হতেই রোদেলাকে স্বামী সোহান, শাশুড়ি ও ননদ সুমী যৌতুকের দাবিতে নির্যাতন শুরু করেন। এর ধারাবাহিকতায় গতকাল সোমবার রাতে রোদেলাকে স্বামী, শ্বাশুড়ি ও ননদ মিলে হত্যা করেন। এরপর তাকে হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়।

গত বছর এনগেজমেন্ট হওয়ার পর চলতি বছরের ১৩ জানুয়ারি রোদেলাকে বিয়ে অনুষ্ঠানের মাধ্যমে তুলে দেওয়া হয়।

ফরিদপুর  কোতোয়ালি থানার সেকেন্ড অফিসার এসআই বেলাল হোসেন বলেন, "খবর পেয়ে লাশ উদ্ধার করে থানায় নিয়ে আসা হয়েছে। নিহতের গলায় আঘাতের চিহ্ন রয়েছে। এটি হত্যাকাণ্ড না আত্মহত্যা- তা ময়নাতদন্তের পর জানা যাবে। রোদেলার পরিবার বলছে এটি হত্যাকাণ্ড। অন্যদিকে, স্বামীর পরিবার বলছে এটি আত্মহত্যা। "

 


মন্তব্য