kalerkantho


গোপালগঞ্জে যৌতুকের দাবিতে নববধূকে নির্যাতন

গোপালগঞ্জ প্রতিনিধি   

২৬ ফেব্রুয়ারি, ২০১৭ ২২:১৪



গোপালগঞ্জে যৌতুকের দাবিতে নববধূকে নির্যাতন

গোপালগঞ্জের কোটালীপাড়ায় যৌতুকের দাবিতে সাবিনা খানম নামে এক নববধুকে নির্যাতন করার অভিযোগ উঠেছে তার স্বামী ও পরিবারের লোকজনের বিরুদ্ধে। গত শনিবার কোটালীপাড়া উপজেলার হরিণাহাটি গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। আহত ওই নববধুকে কোটালীপাড়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়েছে।

গত ১৫ ফেব্রুয়ারি হরিনাহাটী গ্রামের বাদশা কাজীর মেয়ে সাবিনা খানমকে একই গ্রামের শহীদ তালুকদারের ছেলে রনি তালুকদার ভালোবেসে বিয়ে করে।

চিকিত্সারত নববধু সাবিনা খানম সাংবাদিকদের বলেন, বিয়ের পরদিন থেকেই আমার বাবার কাছ থেকে পাঁচ লাখ টাকা আনার জন্য চাপ দেয় স্বামী রনি ও তার পরিবারের লোকজন। গত শনিবার সকালেও রনি টাকা আনার জন্য চাপ দিলে আমি বাবার কাছ থেকে টাকা এনে দিতে অস্বীকার করি। তখন রনিও তার পরিবারের লোকজন ক্ষিপ্ত হয়ে আমাকে মারধর করে।

সাবিনা আরও জানিয়েছেন, রনি মারপিট করার সময় বলে এ ঘটনায় আইনী সহযোগিতা নিলে আমাকে তালাক দেয়া হবে।

সাবিনার পিতা বাদশা কাজী বলেন, বিয়ের পরের দিনই রনি আমাদের নিকট পাঁচ লাখ টাকা যৌতুক দাবি করে। যৌতুকের টাকা না দিতে পারায় রনি ও তার পরিবারের লোকজন আমার মেয়েকে শারিরীক নির্যাতন করে। আমরা খবর পেয়ে অসুস্থ অবস্থায় সাবিনাকে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করি।

কোটালীপাড়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. কামরুল ফারুক এ ব্যাপারে বলেন, মেয়েটির বাবা আমাদের ঘটনাটি মৌখিক জানিয়েছেন, তবে এখন পর্যন্ত লিখিত কোন অভিযোগ দেয়নি। আমরা ঘটনাটি জানতে পেরে অভিযুক্ত রনির বাড়ি পুলিশ পাঠিয়েছিলাম। বাড়িতে গিয়ে কাউকে পাওয়া যায়নি। ধারণা করা হচ্ছে তারা এ ঘটনার পর পলাতক রয়েছে।


মন্তব্য