kalerkantho


বঙ্গবন্ধুর খুনি মোশতাকের বাড়ি উচ্ছেদ ও সম্পত্তি বাজেয়াপ্তের দাবি

দাউদকান্দি (কুমিল্লা) প্রতিনিধি   

২৬ ফেব্রুয়ারি, ২০১৭ ১৭:৫১



বঙ্গবন্ধুর খুনি মোশতাকের বাড়ি উচ্ছেদ ও সম্পত্তি বাজেয়াপ্তের দাবি

জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান হত্যার মূল পরিকল্পনাকারী খন্দকার মোশতাক আহম্মেদের বাড়ি দাউদকান্দি থেকে উচ্ছেদ, স্থাবর-অস্থাবর সম্পত্তি বাজেয়াপ্ত করার দাবিতে দাউদকান্দি উপজেলা আওয়ামী লীগের উদ্যোগে আজ রবিবার ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়ক অবরোধ, বিক্ষোভ মিছিল, মানববন্ধন ও অবস্থান ধর্মঘট পালিত হয়েছে। বাড়ি ঘেরাও চেষ্টাকালে পুলিশের সাথে নেতা-কর্মীদের ধস্তাধস্তির সময় একজন সাংবাদিকসহ ৫জন আহত হয়।

 

সরেজমিনে গিয়ে দেখা যায়, মহাসড়কের গৌরীপুর সরকারী কলেজ, শহীদনগর, ও হাসানপুর সরকারী ডিগ্রি কলেজে ছাত্র ছাত্রীরা শান্তিপূর্ণভাবে মানববন্ধন করেন। মহাসড়কের হাসানপুর সরকারী ডিগ্রি কলেজে ছাত্রছাত্রীরা খুনি মোস্তাকের বাড়ি সরানের দাবিতে মহাসড়কে হাই বেঞ্চ দিয়ে প্রতিরোধ গড়ে তুলে এ সময় উভয়দিকের যানবাহন চলাচল বন্ধ করে দেয়। ছাত্রী ছাত্রীরা আধা ঘন্টা যানবাহন বন্ধ থাকার পর দাউদকান্দি সর্কেলের সিনিয়র সহকারী পুলিশ সুপার মো. মহিদুল ইসলামের নেতৃত্বে দাঙ্গা পুলিশ বিক্ষোব্দ ছাত্র ছাত্রীদেরকে সরিয়ে যানবাহন চলাচলে চেষ্টাকালে এসময় আন্দোলনকারীরা রাস্তার ওপর শুয়ে পড়ে।  

দাউদকান্দি মডেল থানা ও হাই থানা পুলিশ আন্দোলনকারীদেও সরানোর চেষ্ঠা করে। মহাসড়ক আবরোধের খবর শুনে দ্রুত দাউদকান্দি উপজেলার চেয়ারম্যার ও জেলা আওয়ামী লীগের নেতা মেজর অব. মোহাম্মদ আলী সুমন আন্দোলনকারী ছাত্র ছাত্রীদেরকে তাদের দাবী উচ্চ পর্যায়ে জানানোর আশ্বাস দিলে তারা অবরোধ তুলে নেন। মহাসড়কে প্রায় এক ঘন্টা যানবাহন বন্ধ থাকার পর দুপুরে ১২টায় যানবাহন চলাচল শুরু করে।  

এর পর ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কে মানববন্ধন শেষে বিক্ষোভ মিছিল নিয়ে শহীদনগর বাস স্ট্যান্ড থেকে খুনী খন্দকার মোশতাকের বাড়ি দশপাড়ায় যেতে চাইলে ষোলপাড়া এলকায় পুলিশের বাঁধার মুখে পড়ে বিক্ষোভ মিছিলটি। পুলিশ খুনি মোশতাকের বাড়ির সামনে বালি বোঝাই ট্রাক ফেলে আন্দোলনকারীদেরকে বাধা দেয়। পুলিশের বাঁধা উপেক্ষা করে মিছিলটি খুনী মোশতাকের বাড়ি অভিমুখে যেতে চাইলে আন্দোলনকারীদেও সাথে পুলিশের ধস্তাধস্তি হয়।

পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনতে পুলিশ কয়েক রাউন্ড ফাঁকাগুলি বর্ষণ করে। পুলিশ কয়েক রাউন্ড ফাঁকা গুলিবর্ষণের কারণে হুড়োহুড়ি করে দৌড়াতে গিয়ে মিছিলের নেতৃত্বদানকারী দাউদকান্দি উপজেলা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি ও উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান মেজর (অবঃ) মোহাম্মদ আলী সুমন অসুস্থ হয়ে পড়েন এবং খবর সংগ্রহকালে স্থানীয় ১ জন সাংবাদিকসহ ৫ জন আহত হয়।


মন্তব্য