kalerkantho


মোহনগঞ্জে দুই পক্ষের সংঘর্ষে ৫ নারীসহ আহত ২০

হাওরাঞ্চল প্রতিনিধি   

২৬ ফেব্রুয়ারি, ২০১৭ ১৬:২২



মোহনগঞ্জে দুই পক্ষের সংঘর্ষে ৫ নারীসহ আহত ২০

নেত্রকোনার মোহনগঞ্জে স্বামী-স্ত্রীর মধ্যে দীর্ঘদিন ধরে চলে আসা দাম্পত্য কলহের জের ধরে দুই পক্ষের সংঘর্ষে ৫ নারীসহ অন্তত ২০ জন গুরুতর আহত হয়েছেন। গুরুতর আহতাবস্থায় ১৫ জনকে গতরাতেই মোহনগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়েছে।

 বাকিদের স্থানীয়ভাবে প্রাথমিক চিকিৎসা দেওয়া হয়েছে।

গতকাল শনিবার রাত সাড়ে ৮টার দিকে উপজেলার বিরামপুর গ্রামের হবু মিয়া (৫৮) ও একই গ্রামের এরশাদ খাঁর (৫৫) লোকজনের মধ্যে এ সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে।

হাসপাতাল ও প্রত্যক্ষদর্শী সূত্রে জানা গেছে, বড়কাশিয়া-বিরামপুর ইউনিয়নের বিরামপুর গ্রামের হবু মিয়ার ছেলে মোজাম্মেল হকের সাথে গত চার বছর আগে একই গ্রামের এরশাদ খাঁর মেয়ে সীমা আক্তারের (২৪) বিয়ে হয়। বিয়ের পর প্রায় তিন বছর তাদের দাম্পত্য জীবন সুন্দরভাবে চলে আসলেও গত এক বছর ধরে সীমা ও মোজাম্মেলের সংসারে বিভিন্ন বিষয় নিয়ে দাম্পত্য কলহ চলে আসছিল।

গত ১৩ ফেব্রুয়ারি মাসে তারা স্বামী-স্ত্রীর মধ্যে ঝগড়া হওয়ার একপর্যায়ে স্ত্রী সীমা আক্তার তার ১৬ মাস বয়সের আনছান মিয়া নামে শিশুপুত্রকে সঙ্গে নিয়ে সে একই গ্রামের বাবার বাড়িতে চলে যান। এরই জের ধরে গতকাল শনিবার রাত সাড়ে ৮টার দিকে দুই পক্ষের লোকজনের মধ্যে কথাকাটাকাটির একপর্যায়ে সংঘর্ষ বাধে। প্রায় ঘণ্টাব্যাপী চলা এ সংঘর্ষে প্রতিপক্ষের লোকজনের ধারালো অস্ত্র, লাঠিসোঁটা ও ইটপাটকেলের আঘাতে সীমা আক্তার, দিলোয়ারা বেগম, রাশিদা বেগম, আনার কলি ও জাহানারা বেগমসহ অন্ততপক্ষে ২০ জন গুরুতর আহত হন।

মোহনগঞ্জ থানার ওসি মো. মিজবাহ উদ্দিন আহম্মেদ বলেন, এ ধরনের একটি খবর শুনেছি। তবে এ ব্যাপারে থানায় এখনো কোনো পক্ষই অভিযোগ নিয়ে আসেনি।


মন্তব্য