kalerkantho


শরীয়তপুরে অষ্টম শ্রেণির ছাত্রীকে গণধর্ষণ, আটক ১

শরীয়তপুর প্রতিনিধি   

২৫ ফেব্রুয়ারি, ২০১৭ ২৩:০০



শরীয়তপুরে অষ্টম শ্রেণির ছাত্রীকে গণধর্ষণ, আটক ১

শরীয়তপুরের সদর উপজেলার বগাদী গ্রামে অষ্টম শ্রেণিতে পড়ুয়া এক স্কুল ছাত্রীকে ঘর থেকে তুলে নিয়ে স্থানীয় কয়েকজন বখাটে গণধর্ষণ করেছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। ঘটনার সাথে জড়িত সন্দেহে শহীদুল ইসলাম বেপারী নামে একজনকে আটক করেছে পুলিশ। এ ঘটনায় পালং মডেল থানায় একটি মামলা দায়ের করা হয়েছে। গতকাল শুক্রবার রাতে এই ঘটনা ঘটে।

পালং মডেল থানা ও ঘটনার শিকার ওই মেয়েটির পরিবার জানায়, শরীয়তপুর সদর উপজেলার চিকন্দী ইউনিয়নের বগাদী গ্রামের (হারুন-অর-রশীদের) কিশোরী মেয়ে চন্দ্রপুর উচ্চ বিদ্যালয়ের অষ্টম শ্রেণির ছাত্রী (লিজা মনি)। প্রতিদিনের মত নিজের ঘরে পড়াশুনা শেষে রাত সাড়ে ৯ টার সময় একই বাড়ীর তার চাচা নুরুজ্জামানের ঘরে ঘুমাতে যায়। এর পর একই এলাকার মুনসুর বেপারী ছেলে শহীদুল ইসলাম বেপারী ও তার সহযোগী ইয়াসিন খা, পারভেজ মুন্সি ও ইকবাল হোসেন নুরুজ্জামানের ঘরের ছিটকানী খুলে ঘরের ভিতর প্রবেশ করে ওই স্কুল ছাত্রীকে মুখ বেধে জোর করে বাড়ীর উঠানের মাচায় নিয়ে যায়। পরে তাকে সবাই মিলে ধর্ষণ করে।

এক পর্যায়ে ওই কিশোরীর বাঁধা মুখ খুলে গেলে সে চিৎকার দিয়ে উঠে। তার চিৎকারে আসে পাসের লোকজন ছুটে আসলে ধর্ষন কারিরা তাকে বাড়ির পাসের একটি ফসলী জমির মধ্যে ফেলে রেখে পালিয়ে যায়।

স্থানীয় লোকজন চিকন্দী ফারীর পুলিশকে খবর দিলে পুলিশ ঘটনা স্থলে গিয়ে তাকে উদ্ধার করে শরীয়তপুর সদর হাসপাতালে ভর্তি করেছে।

এ ঘটনায় মেয়েটির বাবা আজ শনিবার সকালে বাদি হয়ে থানায় একটি মামলা দায়ের করেছেন। পুলিশ ঘটনার সাথে জড়িত সন্দেহে শহীদুল ইসলাম বেপারী নামে একজনকে আটক করেছে।

ঘটনার শিকার ওই মেয়েটির বাবা (হারুন-অর-রশীদ মাদবর) বলেন, আমার মেয়ে গতকাল শুক্রবার রাতে পড়াশুনা শেষে আমার ভাইয়ের ঘরে ঘুমাতে যায়। গভীর রাতে আমার মেয়েকে মুনসুর বেপারী ছেলে শহীদুল ইসলাম বেপারী ও তার সহযোগী ইয়াসিন খা, পাভেজ মুন্সি, ইকবাল হোসেন পূর্ব পরিকল্পিত ভাবে ঘর থেকে তুলে নিয়ে গণধর্ষণ করে। আমি এ ঘটনার বিচার চাই।

এ ব্যাপারে কথা বলতে অভিযুক্ত বাকিদের সাথে যোগা যোগ করার চেষ্টা করে তাদের বক্তব্য পাওয়া যায়নি। ঘটনার পর থেকে তারা পলাতক রয়েছে বলে জানিয়েছেন এলাকাবাসী।  

পালং মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোঃ খলিলুর রহমান বলেন, অষ্টম শ্রেনীর এক ছাত্রীকে ঘর থেকে তুলে নিয়ে গণধর্ষণ করেছে মর্মে একটি অভিযোগ পেয়েছি। ঘটনার সাথে জড়িত সন্দেহে একজনকে আটক করা হয়েছে। এ ঘটনায় মামলা হয়েছে। অন্য আসামীদের গ্রেপ্তারের চেষ্টা চলছে।


মন্তব্য