kalerkantho


সীতাকুণ্ডে মধ্যরাতে সড়ক দুর্ঘটনারোধে ফায়ার সার্ভিসের মহড়া

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

২৪ ফেব্রুয়ারি, ২০১৭ ১০:০৮



সীতাকুণ্ডে মধ্যরাতে সড়ক দুর্ঘটনারোধে ফায়ার সার্ভিসের মহড়া

চট্টগ্রামের সীতাকুন্ডে ফায়ার সার্ভিসের উদ্যোগে অনুষ্ঠিত হয়েছে সচেতনতামূলক মহড়া। হঠাৎ কোথাও সড়ক দুর্ঘটনা ঘটলে কীভাবে হতাহতদের উদ্ধার করতে হবে, আগুন লাগলে কীভাবে তা নিয়ন্ত্রণ করতে হবে তা এ মহড়ায় দেখানো হয়েছে।

বৃহস্পতিবার রাত সাড়ে ১২টা থেকে ঘণ্টাব্যাপী এই মহড়া অনুষ্ঠিত হয় ঢাকা চট্টগ্রাম মহাসড়কের সীতাকুণ্ডের বার আউলিয়া হাইওয়ে পুলিশ ফাঁড়ির সামনে। নগরীর আগ্রাবাদ, সীতাকুণ্ড এবং কুমিরা-তিনটি ফায়ার সার্ভিসের যৌথ উদ্যোগে এই মহড়া অনুষ্ঠিত হয়েছে। সড়ক দুর্ঘটনা ঘটলে কীভাবে দ্রুত সময়ের মধ্যে গাড়িতে আটকে যাওয়া মানুষকে উদ্ধার করতে হয়, দ্রুত হাসপাতালে নেওয়া যায় অত্যাধুনিক যন্ত্রপাতির মাধ্যমে তা দেখানো হয়।

তিন ইউনিট ফায়ার সার্ভিসের ৩০ জন কর্মীসহ ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়ের (আইআইইউসি) ১৫ জন প্রশিক্ষণপ্রাপ্ত স্বেচ্ছাসেবক এই মহড়ায় অংশ নেন। আগ্রাবাদ, সীতাকুণ্ড এবং কুমিরা ফায়ার সার্ভিসের অত্যাধুনিক যন্ত্রপাতি সমৃদ্ধ ১০ গাড়ি, উচ্চ ক্ষমতাসম্পন্ন ইলেকট্রিক গাড়ি অ্যাম্বুলেন্স এবং উদ্ধারকাজের বিভিন্ন যন্ত্রপাতি মহড়া অনুষ্ঠানে প্রদর্শন করা হয়। সড়ক দুর্ঘটনার ওপর মহড়ায় সার্বিক সহযোগিতা করে বার আউলিয়া হাইওয়ে থানা পুলিশ। মহড়া অনুষ্ঠানে উপস্হিত ছিলেন আগ্রাবাদ ফায়ার সার্ভিসের ডেপুটি অ্যাসিসট্যান্ট ডিরেক্টর কামাল উদ্দিন, কুমিরা ফায়ার সার্ভিসের সিনিয়র স্টেশন অফিসার আবদুল্লাহ হারুন পাশা, হাইওয়ে থানার এসআই ইফতি।

ফায়ার সার্ভিসের ডেপুটি অ্যাসিসট্যান্ট ডিরেক্টর কামাল উদ্দিন বলেন, এই মহড়ার মূল উদ্দেশ্য হলো সড়ক দুর্ঘটনায় নিহত বা আহত থেকে যতটুকু সম্ভব মানুষকে নিরাপদ করা। হঠাৎ একটি সড়ক দুর্ঘটনা ঘটলে যাতে দ্রুত সময়ের মধ্যে দুর্ঘটনাস্থলে পৌঁছে কীভাবে উদ্ধারকাজে সহায়তা দেওয়া যায় তা বোঝানো হয়েছে।

একটি দুর্ঘটনা ঘটলে ফায়ার সার্ভিসের কর্মী ছাড়াও স্বেচ্ছাসেবকসহ সাধারণ মানুষ যাতে উদ্ধারকাজে এগিয়ে আসতে পারে, তার জন্য সচেতনতা সৃষ্টির লক্ষ্যে আয়োজন এই মহড়ার।

 


মন্তব্য