kalerkantho


দাউদকান্দিতে মাদ্রাসার নাম পরিবর্তন, শিক্ষার্থীদের বিক্ষোভ ও ক্লাস বর্জন

দাউদকান্দি (কুমিল্লা) প্রতিনিধি    

২৩ ফেব্রুয়ারি, ২০১৭ ১৭:৫৮



দাউদকান্দিতে মাদ্রাসার নাম পরিবর্তন, শিক্ষার্থীদের বিক্ষোভ ও ক্লাস বর্জন

কুমিল্লার দাউদকান্দিতে অর্ধ শতবর্ষী খন্দকার মোস্তাকের বাবা নামে প্রতিষ্ঠিত হযরত খন্দকার কবির উদ্দিন কামিল মাদ্রাসার নাম পরির্তনের প্রতিবাদে বিক্ষোভ মিছিল ও ক্লাসবর্জন করেছে মাদ্রাসার ছাত্র/ছাত্রীরা। আজ বৃহস্পতিবার শহীদনগর-জুরানপুর সড়কে পাঁচ শতাধিক ছাত্র/ছাত্রী ক্লাস বর্জন এবং বিক্ষোভ মিছিল করেছে।  

এলাকাবাসী ও মাদ্রাসা সূত্রে জানা যায়, খন্দকার মোস্তাক আহমেদ তৎকালিন মন্ত্রী থাকা সময় ১৯৬৮ সালে হযরত খন্দকার কবির উদ্দিন কামিল মাদ্রাসা প্রতিষ্ঠা করেন। মাদ্রাসাটি প্রতিষ্ঠাকালে দশপাড়া গ্রামবাসী ও জায়গির তালুকদার বাড়িতে প্রতিষ্ঠা জন্য দ্বন্দ্ব সৃষ্ঠি হয়। এর জের ধরে দীর্ঘদিন ধরে দুই গ্রামবাসীর মধ্যে বিরোধ চলে আসছে। জায়গির তালকদার বাড়ির নেতৃবৃন্দ মাদ্রাসার নাম পরিবর্তন করার জন্য মাদ্রাসা শিক্ষা বোর্ডে আবেদন করেন। এর নাম পরিবর্তনের একটি নোটিশ গতকাল বুধবার মাদ্রাসা শিক্ষা বোর্ড থেকে আসে। মাদ্রাসা নাম পরিবর্তনের নোটিশ পেয়ে ছাত্র/ছাত্রীরা ক্লাস বর্জন করে এবং মানববন্ধন ও বিক্ষোভ মিছিল। পরে বিক্ষোভ মিছিল শেষে ছাত্র/ছাত্রীরা মাদ্রাসার নাম পরিবর্তনের নোটিশ ফিরিয়ে নেওয়া না হয় ততোদিন পর্যন্ত ক্লাস বর্জন অব্যাহত থাকবে।

দশপাড়া গ্রামেওে নেতৃত্বদানকারী নেতা সামছুল আলম মেম্বার বলেন, দশগ্রামে অর্ধশত বছর আগে এ মাদ্রাসা প্রতিষ্ঠিত হয় এ অঞ্চলের মনোয়ষী হযরত খন্দকার কবির উদ্দিন নামে। তখন জায়গির তালুকদার বাড়ি গ্রামের লোকজন তা মেনে নিতে পারেননি।

তাই এখন তাই ভুয়া মৌজার নাম দেখিয়ে তাদের গ্রামের নামে মাদ্রাসার নাম পরিবর্তনের আবেদন করেছে। আমরা দশপাড়া গ্রামবাসী একবিন্দু রক্ত থাকতেও এ মাদ্রাসার নাম পরিবর্তন করতে দিবু না। জায়গির তালুকদার বাড়ি গ্রামের মো. মনির হোসেন চেয়ারম্যান বলেন, খন্দকার মোস্তাক আহমেদ পূর্ব পাকিস্থানের মন্ত্রী ছিলেন সে দাপটে আমাদের জায়গায় জোরপূর্বক দখল করে এ মাদ্রাসাটি প্রতিষ্ঠা করেন। আমরা দীর্ঘদিন যাবৎ এ বিরুদ্ধে সংগ্রাম করে আসছি। আমাদের অভিযোগের প্রেক্ষিতে মাদ্রাসা শিক্ষা বোর্ড নাম পরিবর্তনের নোটিশ দিয়েছে।

মাদ্রাসার অধ্যক্ষ মো. আবু নোমান আহমেদ বলেন, বাংলাদেশ মাদ্রাসা শিক্ষাবোর্ড থেকে নাম পরিবর্তনের একটি নোটিশ পেয়েছি। নোটিশের খবর পেয়ে মাদ্রাসার পাঁচ শতাধিক ছাত্র/ছাত্রী ক্লাস বর্জন করে এবং বিক্ষোভ মিছিল করেছে।


মন্তব্য