kalerkantho


চট্টগ্রাম শহীদ মিনারে ফুল দেয়ার সময় দু'পক্ষের হাতাহাতি

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

২১ ফেব্রুয়ারি, ২০১৭ ০৩:৩৬



চট্টগ্রাম শহীদ মিনারে ফুল দেয়ার সময় দু'পক্ষের হাতাহাতি

একুশের প্রথম প্রহরে চট্টগ্রাম কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে ফুল দিতে গিয়ে নিজেদের মধ্যে হাতাহাতিতে লিপ্ত হয়েছে মুক্তিযোদ্ধা সন্তান কমান্ডের সদস্যরা। ভাষা শহীদদের প্রতি শ্রদ্ধা জানাতে মুক্তিযোদ্ধা সংসদ চট্টগ্রাম জেলা কমান্ডের সঙ্গে পুষ্পস্তবক দিতে গিয়ে হাতাহাতিতে জড়িয়ে পড়েন সন্তান কমান্ডের সদস্যরা।

এতে শহীদ মিনারে বিশৃঙ্খল পরিস্থিতির সৃষ্টি হয়।  

একুশের প্রথম প্রহরে চট্টগ্রাম কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে পুষ্পস্তবক দিয়ে শ্রদ্ধা জানান ভূমি প্রতিমন্ত্রী সাইফুজ্জামান চৌধুরী জাবেদ। এরপর শ্রদ্ধা জানান চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশনের মেয়র ও মহানগর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আ জ ম নাছির উদ্দিন ও কাউন্সিলররা। এসময় চট্টগ্রাম মহানগর আওয়ামী লীগের পক্ষ থেকেও শ্রদ্ধা জানানো হয়। তারপর একে একে পুষ্পস্তবক দিয়ে শ্রদ্ধা জানান চট্টগ্রাম বিভাগীয় কমিশনার মো. রুহুল আমীন, চট্টগ্রাম রেঞ্জের ডিআইজি মোহাম্মদ শফিকুল ইসলাম, চট্টগ্রাম মেট্রোপলিটন পুলিশ কমিশনার ইকবাল বাহার, জেলা প্রশাসক সামসুল আরেফিন, জেলা পুলিশ সুপার নুরে আলম মিনা। তাদের শ্রদ্ধা নিবেদন শেষে শহীদ মিনারে ফুল দিতে আসে মুক্তিযোদ্ধা সংসদ চট্টগ্রাম জেলা ও মহানগর কমান্ড। তাদের সাথে ছিল মুক্তিযোদ্ধা সন্তান কমান্ড জেলা কমিটির সদস্যরা।

শহীদ বেদীতে ফুল দিতে ওঠার সময়ই তাদের মধ্যে দুটি পক্ষ হাতাহাতিতে জড়ায়। কয়েক মিনিট ধরে হাতাহাতির ঘটনা ঘটে।

পরে ঘটনাস্থলে দায়িত্ব পালনরত পুলিশ ও আনসার সদস্যরা তাদের সরিয়ে দেয়। সন্তান কমান্ড সদস্যদের হাতাহাতির সময় শ্রদ্ধা জানানোর জন্য পেছনে অপেক্ষারত চট্টগ্রাম জেলা আইনজীবী সমিতির কয়েকজন সদস্যও লাঞ্চিত হন। একুশের প্রথম প্রহরে শহীদ মিনারে অন্যদের মধ্যে পুষ্পস্তবক অর্পণ করে চট্টগ্রাম প্রেসক্লাব, চট্টগ্রাম সাংবাদিক ইউনিয়ন, টিভি জার্নালিস্ট অ্যাসোসিয়েশন, চট্টগ্রাম মহানগর ছাত্রলীগ, মহানগর যুবলীগ, ছাত্রলীগ চট্টগ্রাম অঞ্চলের সাবেক নেতারা, ফায়ার সার্ভিস, চট্টগ্রাম কাস্টমস কমিশনার, বনবিভাগসহ বিভিন্ন সরকারি প্রতিষ্ঠানের পদস্থ কর্মকর্তারা।

এরপর বিভিন্ন সামাজিক, সাংস্কৃতিক ও রাজনৈতিক সংগঠনের নেতাকর্মীরা শহীদ মিনারে ভাষা শহীদদের প্রতি শ্রদ্ধা জানাতে আসেন। এসময় শহীদ মিনার ও আশেপাশের এলাকা শিশু কিশোর থেকে শুরু করে বিভিন্ন বয়েসী মানুষের পদচারণায় মুখর হয়ে ওঠে।


মন্তব্য