kalerkantho


হবিগঞ্জে জামাইয়ের হাতে শ্বশুর খুন

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

১৯ ফেব্রুয়ারি, ২০১৭ ০৯:১৬



হবিগঞ্জে জামাইয়ের হাতে শ্বশুর খুন

হবিগঞ্জের মাধবপুর উপজেলায় ধারালো অস্ত্র দিয়ে কুপিয়ে শ্বশুর কামাল মিয়াকে (৪৭) তার মেয়ে জামাই সাজু মিয়া (৩২) হত্যা করেছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। ঘটনার সময় সাজুর অস্ত্রের আঘাতে গুরুতর জখম হয়েছেন শাশুড়িসহ চারজন।

তাদের অবস্থাও আশঙ্কাজনক। শনিবার ভোররাতে উপজেলার বাঘাসুরা ইউনিয়নের রতনপুর গ্রামে এ ঘটনা ঘটে।

নিহত কামাল মিয়া মাধবপুরে উপজেলার রতনপুর গ্রামের মঞ্জিল মিয়ার পুত্র। আর ঘাতক সাজু মিয়া শায়েস্তাগঞ্জ থানার সুতাং গ্রামের মস্তু মিয়ার ছেলে। আহতরা হলেন, নিহত কামাল মিয়ার স্ত্রী ছায়েরা খাতুন (৪৩), মেয়ে নূরজাহান (২৫), নেক জাহান (১৮) ও ভাগিনা স্বপন মিয়া (১৯)। আশঙ্কাজনক অবস্থায় তাদেরকে সিলেট ওসমানী মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

পুলিশ ও স্থানীয়রা জানায়, প্রায় তিন বছর আগে শায়েস্তাগঞ্জ থানার সুতাং গ্রামের মস্তু মিয়ার ছেলে সাজু মিয়ার সঙ্গে বিয়ে হয় রতনপুর গ্রামের কামাল মিয়ার মেয়ে নূরজাহানের। বিয়ের পর থেকে সাজু ও নূরজাহানের মধ্যে দাম্পত্য কলহ দেখা দেয়। একপর্যায়ে তাদের মধ্যে বিচ্ছেদ ঘটে।

তবে উভয় পরিবারের চেষ্টায় এ সম্পর্ক আবারও জোড়া লাগে।

কিন্তু পুনরায় একই সমস্যা দেখা দিলে নূরজাহান বাবার বাড়িতে অবস্থান করতে থাকেন। শনিবার ভোরে সহযোগীদের নিয়ে সাজু মিয়া শ্বশুর বাড়ি রতনপুরে আসে। কোনও কিছু বুঝে ওঠার আগেই তিনি ধারালো অস্ত্র দিয়ে শ্বশুর কামাল মিয়াকে কোপাতে থাকেন। এ সময় বাধা দিতে গেলে কামাল মিয়ার স্ত্রী ছায়েরা খাতুন, মেয়ে নূরজাহান, নেক জাহান ও ভাগিনা স্বপন মিয়াকেও কুপিয়ে জখম করেন সাজু। আহতদের চিৎকারে প্রতিবেশীরা ঘটনাস্থলে ছুটে এলে সাজু মিয়া ও তার সহযোগীরা পালিয়ে যায়।

মাধবপুর থানার ওসি মোক্তাদির হোসেন জানান, খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে আলামত সংগ্রহ করে। আর ময়নাতদন্তর জন্য লাশ উদ্ধার করে হবিগঞ্জ সদর হাসপাতালে পাঠানো হয়। এ ঘটনায় কেউ মামলা করেনি। প্রাথমিকভাবে ধারণা করা হচ্ছে, পারিবারিক কলহের জের ধরে এ হত্যাকাণ্ড ঘটেছে। সাজু মিয়াকে আটকের চেষ্টা চলছে।


মন্তব্য