kalerkantho


কিশোরীকে নির্যাতনকারী সেই ইউপি চেয়াম্যানসহ ২ জনের বিরুদ্ধে মামলা

লক্ষ্মীপুর প্রতিনিধি   

১৫ ফেব্রুয়ারি, ২০১৭ ২৩:৫৫



কিশোরীকে নির্যাতনকারী সেই ইউপি চেয়াম্যানসহ ২ জনের বিরুদ্ধে মামলা

লক্ষ্মীপুরের কমলনগর উপজেলার সেই চরমার্টিন ইউনিয়ন পরিষদের (ইউপি) চেয়ারম্যান ও ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি ইউছুফ আলী ও গ্রাম পুলিশ রাশেদ সালিশ-বৈঠকে ধর্ষণের অভিযোগে ধর্ষক ও ধর্ষণের শিকার কিশোরীকে পেটানোর ঘটনায় মামলা হয়েছে। আজ বুধবার বিকেলে কমলনগর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আকুল চন্দ্র বিশ্বাস মামলার বিষয়টি নিশ্চিত করেণ। হাজিরহাট পুলিশ তদন্ত কেন্দ্রের উপ-পরিদর্শক (এসআই) মো. হুমায়ুন বাদী হয়ে কমলনগর থানায় মামলা দায়ের করেণ।

মামলায় ইউপি চেয়ারম্যান ইউছুফ আলী ও ৭ নম্বর ওয়ার্ডের গ্রাম পুলিশ মো. রাশেদের নাম উল্লেখ করে অজ্ঞাত আরও ৪/৫ জনকে আসামি করা হয়।  

প্রসঙ্গত, ইউপি চেয়ারম্যান ইউছুফ আলী গত ৩১ ডিসেম্বর এক শালিস-বৈঠকে ধর্ষক ও ধর্ষণের শিকার কিশোরীকে প্রকাশ্যে লাঠি দিয়ে পেটান। এ সময় গ্রাম পুলিশ রাশেদও ধর্ষককে পেটায়। নির্যাতনের প্রায় দেড় মাস পর ভিডিওটি ফেসবুকে ভাইরাল হয়। এর পর থেকে ভিডিওটি নিয়ে বিভিন্ন মহলে সমালোচনার ঝড় উঠে। নির্যাতিত ওই দুইজন উপজেলার চর মার্টিন ইউনিয়নের বাসিন্দা। তারা সম্পর্কে শ্যালিকা-দুলা ভাই। পরে দুলাভাই আব্দুল আলী কালুকে থানা পুলিশের কাছে সোপর্দ করা হয়।

মামলার বাদী হাজিরহাট পুলিশ তদন্ত কেন্দ্রের উপ-পরিদর্শক (এসআই) মো. হুমায়ুন বলেন, 'দুলাভাই কৌশলে শ্যালিকাকে অপহরণ করে চট্টগ্রাম নিয়ে ধর্ষণ করে। মেডিকেল পরীক্ষায় ধর্ষণের আলামত মিলেছে। এ ঘটনায় কমলনগর থানায় মামলা করেছে কিশোরীর বাবা। পরে ওই মামলা তাকে গ্রেপ্তার দেখিয়ে আদালতে মাধ্যমে কারাগারে পাঠানো হয়েছে। চেয়ারম্যান নির্যাতন করেছে বিষয়ে তৎক্ষণিক কিংবা পরে কেউ অভিযোগ করেনি। পুলিশ বিষয়টি অবগত ছিল না। এনিয়ে মিডিয়ায় সংবাদ প্রকাশের পর জানতে পেরে আমি বাদি হয়ে মামলা দায়ের করেছি। '


মন্তব্য