kalerkantho


র‍্যাবের সঙ্গে বন্দুকযুদ্ধে নুরুবাহিনীর প্রধানসহ আটক ২

বাগেরহাট প্রতিনিধি   

১৩ ফেব্রুয়ারি, ২০১৭ ০০:০০



র‍্যাবের সঙ্গে বন্দুকযুদ্ধে নুরুবাহিনীর প্রধানসহ আটক ২

সুন্দরবনে র‌্যাব সদস্যদের সঙ্গে বনদস্যু নুরু বাহিনীর বন্দুকযুদ্ধের ঘটনা ঘটেছে। আজ সোমবার সকাল সোয়া ৮টার দিকে সুন্দরবন পশ্চিম বিভাগের সাতক্ষীরা জেলার শ্যামনগর উপজেলার ছোটকলাগাছি এলাকার পশুরতলা খালে ওই বন্দুকযুদ্ধের ঘটনা ঘটে।

 

প্রায় এক ঘন্টা ধরে গোলাগুলির এক পর্যায়ে র‌্যাব সদস্যরা বাহিনী প্রধান নুরু এবং তার বাহিনীর উপপ্রধান আব্বাসকে আট করে। এ সময় বন তল্লাশি করে দস্যুদের ব্যবহৃত চারটি বিদেশি আগ্নেয়াস্ত্র এবং ৫০ রাউন্ড গুলি উদ্ধার করা হয়েছে বলে র‌্যাব সুত্র জানায়।

আটকৃত দস্যুরা হচ্ছেন, যশোর জেলার শার্শা উপজেলার বাগআচাড়া গ্রামের জাকির আলী দালালের ছেলে বাহিনী প্রধান মো. নুর হোসেন ওরফে দালাল ওরফে নুরু (৩৩) এবং তার বাহিনীর উপপ্রধান সাতক্ষীরা সদর উপজেলার আলীপুর গ্রামের বশির গাজীর ছেলে মো. আব্বাস গাজী (৩৫)।

উদ্ধারকৃত অস্ত্রের মধ্যে রয়েছে, দুটি বিদেশি একনালা বন্দুক, একটি বিদেশি দোনালা বন্দুক এবং একটি বিদেশি কাটারাইফেল।

র‌্যাব বরিশাল-৮ এর উপ-অধিনায়ক মেজর আদনান কবির জানান, 'দস্যু দমনে র‌্যাব সদস্যরা রবিবার সুন্দরবনে অভিযান শুরু করে। আজ সোমবার সকাল সোয়া ৮টার দিকে র‌্যাবের একটি দল সুন্দরবনের পশুরতলা খালে পৌছালে বনের মধ্যে দিয়ে দস্যুরা র‌্যাব সদস্যেদের লক্ষ করে গুলি বর্ষণ করে। এ সময় র‌্যাব সদস্যরাও পাল্টা গুলি চালায়। প্রায় এক ঘন্টা ধরে থেমে থেমে গোলাগুলির এক পর্যায়ে নুরু বাহিনী প্রধান নুর হোসেন ওরফে নুরু এবং তার বাহিনীর উপপ্রধান আব্বাসকে আটক করা হয়। ' এ সময় বন তল্লাশি করে দস্যুদের ব্যবহৃত চারটি বিদেশি আগ্নেয়াস্ত্র এবং ৫০ রাউন্ড গুলি উদ্ধার করা হয় বলে র‌্যাবের ওই কর্মকর্তা জানান।

 

র‌্যাবের প্রেসবিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়, 'নুরু সম্প্রতি সময়ে নিজের নামে বাহিনী গঠন করে সুন্দরবনে সংগঠিত হয়ে শক্তি সঞ্চয় করে বিপুল বিক্রমে ডাকাতি করার প্রস্তুতি করছিল। এর আগে নুরু  জলদস্যু আলম বাাহিনী এবং খোকা বাবু বাহিনীর সদস্য হিসাবে সক্রিয় ছিল। '


মন্তব্য