kalerkantho


'পল্লী উন্নয়ন একাডেমির মাধ্যমে দারিদ্র বিমোচনে ভূমিকা রাখতে হবে'

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

১১ ফেব্রুয়ারি, ২০১৭ ২১:৪৮



'পল্লী উন্নয়ন একাডেমির মাধ্যমে দারিদ্র বিমোচনে ভূমিকা রাখতে হবে'

স্থানীয় সরকার, পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় (এলজিআরডি) মন্ত্রী ইঞ্জিনিয়ার খন্দকার মোশাররফ হোসেন বলেছেন, পল্লী উন্নয়ন একাডেমির মাধ্যমে প্রায়োগিক গবেষণা ও প্রশিক্ষণ দিয়ে দেশের উন্নয়নে ও গ্রামীণ জনপদের দারিদ্র বিমোচনে বিশেষ ভূমিকা রাখতে হবে। আজ শনিবার বগুড়ায় পল্লী উন্নয়ন একাডেমিতে ৪৪তম বোর্ড সভায় সভাপতির বক্তব্যে তিনি এ কথা বলেন।

এলজিআরডিমন্ত্রী বলেন, জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের হাতে প্রতিষ্ঠিত এই প্রতিষ্ঠানকে উত্তরাঞ্চলসহ সারা দেশের পল্লী জনপদের উন্নয়নে আরও কার্যকর ভূমিকা রাখতে হবে। পল্লী অর্থনীতিকে বেগবান ও জীবন যাত্রার মান উন্নয়নে একাডেমিকে যুগোপযোগী গবেষণা কার্যক্রম পরিচালনা করে তার প্রয়োগ নিশ্চিত ও গুণগত প্রশিক্ষণ প্রদান করতে নির্দেশনা প্রদান করেন।

তিনি বলেন, বাংলাদেশ পল্লী উন্নয়ন একাডেমি, কুমিল্লার আদলে প্রতিষ্ঠিত পল্লী উন্নয়ন একাডেমিসমূহ সমন্বিতভাবে কার্যক্রম পরিচালনার মাধ্যমে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ঘোষিত ভিশন ২০২১ ও ভিশন বাস্তবায়নে ভূমিকা রাখবে।

সভায় খন্দকার মোশাররফ হোসেন ভূ-পৃষ্ঠের পানির ব্যবহার বাড়ানোর জন্য প্রযুক্তির উদ্ভাবন, পুকুর খনন এবং তা সারা দেশে ছড়িয়ে দেওয়ার জন্য নির্দেশনা দেন। একই সঙ্গে তিনি আরডিএ, বগুড়া কর্তৃক উদ্ভাবিত কমিউনিটি বায়োগ্যাস প্ল্যান্ট প্রকল্পকারে সারা দেশে ছড়িয়ে দেওয়ার বিষয়ে সকলকে আশস্ত করেন।  

এ সময় মন্ত্রী পল্লী দারিদ্র বিমোচনে একটি বাড়ি একটি খামার, সমবায় অধিদপ্তর, বিআরডিবি ও পল্লী উন্নয়ন একাডেমিসমূহকে সমন্বিতভাবে কাজ করার নির্দেশনাও প্রদান করেন।

সভায় অন্যান্যদের মধ্যে বগুড়া-৫ আসনের জাতীয় সংসদ সদস্য বীরমুক্তিযোদ্ধা আলহাজ মো. হাবিবুর রহমান,পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় বিভাগের সচিব ড. প্রশান্ত কুমার রায় , পল্লী উন্নয়ন একাডেমি, বগুড়ার মহাপরিচালক এম এ মতিন সহ বোর্ডের অন্যান্য সদস্যগণ উপস্থিত ছিলেন।


মন্তব্য