kalerkantho


সংসদে হুইপ আতিকের বক্তব্যের প্রতিবাদ

শেরপুর জেলা পরিষদ চেয়ারম্যানের সংবাদ সম্মেলন

শেরপুর প্রতিনিধি    

১১ ফেব্রুয়ারি, ২০১৭ ১৬:৩১



শেরপুর জেলা পরিষদ চেয়ারম্যানের সংবাদ সম্মেলন

শেরপুরে জেলা পরিষদ নির্বাচন পরবর্তী সহিংস ঘটনা, হুমকি-ধমকি, সন্ত্রাসী কর্মকাণ্ডের ঘটনা উল্লেখ করে জাতীয় সংসদে হুইপ আতিউর রহমান আতিকের  দেওয়া বক্তব্যের প্রতিবাদ জানিয়েছেন জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান হুমায়ুন কবীর রুমান। আজ শনিবার দুপুরে জেলা পরিষদ সম্মেলন কক্ষে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে আওয়ামী লীগ নেতা রুমান জেলা আওয়ামী লীগ সভাপতি হুইপ আতিকের বক্তব্যকে অসত্য, বানোয়াট ও বিদ্বেষমূলক বলে আখ্যায়িত করেছেন।

এ সময় জেলা চেয়ারম্যান রুমান লিখিত বক্তব্যে বলেন, "আমার জনপ্রিয়তায় ঈর্ষান্বিত হয়ে হুইপ আতিক আমকে হেয় প্রতিপন্ন করার জন্য নানা ষড়যন্ত্র করে চলেছেন, এটা তারই অংশ। তিনি হুইপ আতিককে সংসদে দেওয়া তাঁর বক্তব্য অবিলম্বে প্রত্যাহারের আহ্বান জানান। অন্যথায় শেরপুরবাসীই তাঁকে প্রত্যাহার করবে বলেও উল্লেখ করেন তিনি। সংবাদ সম্মেলনে এসময় অন্যান্যের মাঝে সদর উপজেলা চেয়ারম্যান ছানুয়ার হোসেন ছানু, মুক্তিযোদ্ধা আব্দুল ওয়াদুদ অদু, জেলা যুবলীগ সভাপতি হাবিবুর রহমান হাবীব, জেলা পরিষদ সদস্যবৃন্দ, উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান বায়োজিদ হাসান, সেক্টর কমান্ডার্স ফোরামের জেলা সম্পাদক অ্যাডভোকেট আখতারুজ্জামানসহ দলীয় নেতৃবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।

গত বুধবার বিকেলে সংসদ অধিবেশন চলাকালে শেরপুর ১ আসনের সংসদ সদস্য জেলা আওয়ামী লীগ সভাপতি হুইপ আতিউর রহমান আতিক 'পয়েন্ট অব অর্ডার'  নিয়ে বক্তব্য দেন। এতে জেলা পরিষদ নির্বাচনের জের ধরে শান্ত শেরপুরকে অস্থিতিশীল করে তোলার জন্য দলের একটি অংশ অপচেষ্টা চালাচ্ছে বলে অভিযোগ করেন। অদৃশ্য শক্তির ইশারায় সন্ত্রাসীরা প্রশ্রয় পাচ্ছে এবং বেপরোয়া হয়ে উঠছে। গত ৪ ফেব্রুয়ারি আওয়ামী লীগ নেতা অধ্যক্ষ গোলাম হাসান সুজনের ওপর হামলা করে আহত করা হয়েছে। স্থানীয় দলীয় নেতৃবৃন্দ, জনপ্রতিনিধি, কলেজ অধ্যক্ষ, সরকারি কর্মকর্তাদের অস্ত্রধারীরা হুমকি-ধমকি দিয়ে এক অরাজক অবস্থার সৃষ্টি করেছে।

হুমকির শিকার লোকজন নিরাপত্তাহীনতায় ভুগছে বলেও বক্তব্যে উল্লেখ করেন তিনি।

 


মন্তব্য