kalerkantho


ফরিদপুরে সড়ক দুর্ঘটনায় নিহতদের হস্তান্তরের প্রক্রিয়া চলছে

নিজস্ব প্রতিবেদক, ফরিদপুর    

১১ ফেব্রুয়ারি, ২০১৭ ১২:১২



ফরিদপুরে সড়ক দুর্ঘটনায় নিহতদের হস্তান্তরের প্রক্রিয়া চলছে

ঢাকা-খুলনা মহাসড়কের ফরিদপুরের নগরকান্দা উপজেলার চরযশোরদী ইউনিয়নের গজারিয়া এলাকায় গতকাল শুক্রবার রাত ১১টার দিকে হানিফ পরিবহনের যাত্রীবাহী বাস ও কাভার্ড ভ্যানের মুখোমুখি সংঘর্ষ হয়। এতে বাস ও কাভার্ড ভ্যানে আগুন লেগে অগ্নিদগ্ধ হয়ে ১৩ জন নিহত হন।

খবর পেয়ে পুলিশ ও ফায়ার সার্ভিসের কর্মীরা ঘটনাস্থলে গিয়ে আহত ২৫ জনকে উদ্ধার করে নড়াইল ও মুকসুদপুর উপজেলা স্বাস্থ্যকেন্দ্রে পাঠায়।

বাসটি নড়াইল থেকে ঢাকা যাচ্ছিল। আর কাভার্ড ভ্যানটি খুলনামুখী। বাস ও কাভার্ড ভ্যানের ভেতর অগ্নিদগ্ধ হয়ে নিহত ১৩ জনের লাশ রাতেই ফরিদপুর মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হয়। দুর্ঘটনার খবর পেয়ে নিহতদের লাশ শনাক্ত করতে হাসপাতালে এসেছেন স্বজনরা। এ সময় অনেকেই কান্নায় ভেঙে পড়েন।
নিহতদের মধ্যে এ পর্যন্ত এক ব্যক্তির পরিচয় নিশ্চিত হওয়া গেছে। তিনি হলেন গোপালগঞ্জের গোলাম রসুল সিকদার। ঢাকায় অবস্থিত ইবনে সিনা হাসপাতালের অপারেশন ইনচার্জ ছিলেন তিনি।

তার শ্যালক হাফিজুর রহমান বাচ্চু জানান, নড়াইলে একটি ক্লিনিক উদ্বোধন শেষে তিনি হানিফ পরিবহনের ওই বাসযোগে ঢাকায় ফিরছিলেন। পথে দুর্ঘটনায় বাসে আগুন লাগলে তাতে দগ্ধ হয়ে মারা যান তিনি।

আজ শনিবার সকালে ফরিদপুরের ভারপ্রাপ্ত জেলা প্রশাসক ড. কে এম কামরুজ্জামান সেলিম সাংবাদিকদের বলেন, "দুর্ঘটনার খবর পেয়ে জেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে হতাহতদের উদ্ধার ও চিকিৎসার প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে। স্বজনদের কাছে লাশ হস্তান্তরের বিষয়টি প্রক্রিয়াধীন। তিনি বলেন, "মরদেহ পরিবহনের খরচ দেবে জেলা প্রশাসন। " ফরিদপুর মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালের ভারপ্রাপ্ত তত্ত্বাবধায়ক ডা. কামরুজ্জামান বলেন, "বিনা ময়নাতদন্তে স্বজনদের কাছে লাশ দ্রুত বুঝিয়ে দেওয়া হবে। "
 


মন্তব্য