kalerkantho


মেয়র মিরুর হাতে বহিষ্কারের নোটিশ

সিরাজগঞ্জ প্রতিনিধি    

১০ ফেব্রুয়ারি, ২০১৭ ২০:২২



মেয়র মিরুর হাতে বহিষ্কারের নোটিশ

সিরাজগঞ্জের শাহজাদপুরে সাংবাদিক শিমুল হত্যা মামলার প্রধান আসামি মেয়র হালিমুল হক মিরুর বহিষ্কার আদেশের নোটিশের তাঁর হাতে পৌঁছেছে। আজ শুক্রবার দুপুরে সিরাজগঞ্জ জেলা কারাগারের সুপার আল মামুন এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

পৌর মেয়র ও জেলা আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক হালিমুল হক মিরুকে বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ থেকে সাময়িকভাবে বহিষ্কার করার পর কেন চূড়ান্তভাবে বহিষ্কার করা হবে না- তা জানতে ১৫ দিনের মধ্যে লিখিত জবাব চেয়ে কেন্দ্রীয় আওয়ামী লীগ থেকে যে নোটিশ দেওয়া হয়েছে সেই বিষয়ে করণীয় ঠিক করতে ওই সভা ডাকা হয়।

সভায় দ্রুত সময়ের মধ্যে নোটিশটি জেলা ম্যাজিস্ট্রেটের অনুমতি সাপেক্ষে জেলা কারাগারে থাকা মিরুর কাছে পৌঁছে দেওয়া এবং নোটিশের জবাব গ্রহণ করার সিদ্বান্ত নেওয়া হয়। পাশাপাশি কার্যনির্বাহী সদস্য পদ থেকে বহিষ্কারে শাহজাদপুর উপজেলা আওয়ামী লীগ মিরুকে বহিষ্কারের বিষয়ে যে সুপারিশ করেছিল তাও কেন্দ্রীয় কমিটির কাছে পাঠানোর সিদ্বান্ত হয় ওই সভায়। উপজেলা আওয়ামী লীগের আরেক বহিষ্কৃত সদস্য কারাগারে থাকা কে এম নাসির উদ্দিনের ক্ষেত্রেও একই পন্থা অবলম্বনের সিদ্বান্ত নেওয়া হয়েছে বলে জানিয়েছেন এই আওয়ামী লীগ নেতা। কেন্দ্রীয় আওয়ামী লীগের পাঠানো নোটিশটি বুধবার রাতে জেলা আওয়ামী লীগ নেতাদের হাতে এসে পৌঁছায়।

এদিকে, সিরাজগঞ্জ কারাগারের সুপার আল মামুন জানান. বৃহস্পতিবার রাত পৌনে ১০টার দিকে জেলা প্রশাসকের মাধ্যমে মেয়র মিরু ও কে এম নাসিরের বহিষ্কারের নোটিশ কারাগারে এসে পৌঁছায়। রাতেই তা ওই দুইজনের কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে। তারা নোটিশের লিখিত জবাব দেওয়ার পর একই পদ্ধতিতে জেলা পদ্ধতিতে জেলা প্রশাসকের মাধ্যমে আবার তা জেলা আওয়ামী লীগের কাছে পৌঁছাবে।

উল্লেখ্য, গত ২ ফেব্রুয়ারি শাহজাদপুর পৌর মেয়র গ্রুপের সঙ্গে ছাত্রলীগের একাংশের সংঘর্ষ চলাকালে গুলিবিদ্ধ হয়ে পরদিন ৩ ফেব্রুয়ারী মারা যান সমকালের শাহজাদপুর প্রতিনিধি আব্দুল হাকিম শিমুল।

এ ঘটনায় ওই দিন রাতে নিহতের স্ত্রী  নুরুন্নাহার বেগম বাদী হয়ে মেয়র হালিমুল হক মিরু ও তার ভাইসহ ১৮ জনকে আসামি করে হত্যা মামলা দায়ের করেন। ৫ ফেব্রুয়ারি রাতে ঢাকার শ্যামলী এলাকা থেকে মামলার প্রধান আসামি পৌর মেয়র হালিমুল হক মিরুকে গ্রেপ্তার করে পুলিশ।

 


মন্তব্য