kalerkantho


হাট বাজার ইজারার টাকা আত্মসাৎ

জয়পুরহাটে দুর্নীতি মামলায় আওয়ামী লীগ নেতা জেলহাজতে

জয়পুরহাট প্রতিনিধি   

৫ ফেব্রুয়ারি, ২০১৭ ২০:২০



জয়পুরহাটে দুর্নীতি মামলায় আওয়ামী লীগ নেতা জেলহাজতে

দুর্নীতির মামলায় জয়পুরহাটের কালাই পৌরসভার সাবেক মেয়র ও উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক তৌফিকুল ইসলাম তালুকদার বেলালকে জেলহাজতে পাঠানোর নির্দেশ দিয়েছেন আদালত। আজ রবিবার দুর্নীতির পৃথক দুটি মামলায় তৌফিকুল ইসলাম আত্মসমর্পন করে স্পেশাল জজ আদালতে (জেলা ও দায়রা জজ) আইনজীবীর মাধ্যমে জামিনের আবেদন জানান। বিচারক মোঃ আব্দুর রহিম শুনানি শেষে তাঁকে জেলহাজতে পাঠানোর নির্দেশ দেন। এরপরে বিকেলে তাঁকে কারাগারে পাঠানো হয়।  

মামলার অভিযোগে জানা গেছে, কালাই পৌরসভার মেয়র পদে দায়িত্ব পালনকালে তৌফিকুল ইসলাম বাংলা ১৪১৮ (ইংরেজি ২০১১) ও ১৪১৯  (২০১২) সালে কালাই হাট এবং কালাই ও পাঁচশিরা বাজার ইজারা প্রদানের চুক্তি সম্পাদন করেন। সেখানে হাটবাজার ইজারার সরকারি নীতিমালা লঙ্ঘন করে ওই দুই বছরে হাট বাজার ইজারার টাকা পৌরসভা তহবিলে জমা না দিয়ে ২২ লাখ ৫৬ হাজার ৭৫০ টাকা এবং শতকরা ১৫ শতাংশ ভ্যাট ও ৫ শতাংশ আয়করের ৬ লাখ ৩৫ হাজার টাকা সরকারি কোষাগারে জমা না দিয়ে আত্মসাৎ করেন। ওই সময় মেয়রের সাথে হাটবাজার ইজারাদার রেজাউল করিম গোপন চুক্তিতে আবদ্ধ হয়ে বাড়তি সুবিধা লাভ করেন। এ ঘটনায় দুর্নীতি দমন কমিশনের বগুড়ার সমন্বিত জেলা কার্যালয়ের সহকারি পরিচালক ফারুক আহমেদ সাবেক মেয়র ও আওয়ামী লীগ নেতা তৌফিকুল ইসলাম ও ইজারাদার রেজাউল করিমের বিরুদ্ধে দুর্নীতির অভিযোগ এনে ২০১৪ সালের ১৩ মার্চ কালাই থানায় পৃথক দুটি মামলা দায়ের করেন। পরবর্তীতে দুর্নীতি দমন কমিশনের উপ-পরিচালক শেখ আবদুস ছালাম মামলাটি তদন্ত করে ২০১৬ সালের ৩০ জুন ওই দুজনকে অভিযুক্ত করে আদালতে অভিযোগপত্র দাখিল করেন। আজ রবিবার অভিযুক্ত মেয়র তৌফিকুল ইসলাম জেলার স্পেশাল জজ আদালতে আত্মসমর্পন করে আইনজীবীর মাধ্যমে জামিনের আবেদন জানান। বিচারক মোঃ আব্দুর রহিম উভয় পক্ষের আইনজীবীর শুনানি শেষে জামিন নামঞ্জুর করে তৌফিকুল ইসলামকে জেলা কারাগারে পাঠানোর আদেশ দিলে বিকেলে তাঁকে জেলা কারাগারে পাঠানো হয়।

তবে ওই মামলার অপর আসামি কালাই হাট এবং কালাই ও পাঁচশিরা বাজারের সাবেক ইজারাদার রেজাউল করিম পলাতক রয়েছেন।  

এ প্রসঙ্গে আসামি পক্ষের আইনজীবী মোস্তাফিজুর রহমান জানান, সাবেক মেয়র তৌফিকুল ইসলামকে আদালতে হাজির করে জামিনের প্রার্থনা জানানো হলে আদালতের বিচারক জামিন নামঞ্জুর করে তাঁকে জেলা কারাগারে পাঠানোর নির্দেশ দিয়েছেন।  

এ ব্যাপারে দুর্নীতি দমন কমিশনের সরকারি কৌসলী নন্দকিশোর আগরওয়ালা জানান, দুর্নীতির দুটি মামলায় কালাই পৌরসভার সাবেক মেয়র তৌফিকুল ইসলামের বিরুদ্ধে পৌরসভা ও সরকারের প্রায় ২৯ লাখ টাকা দুর্নীতি করে আত্মসাৎ করার অভিযোগপত্র দাখিল করা হয়েছে। রবিবার তিনি আদালতে আত্মসমর্পন করে জামিনের জন্য আবেদন জানালে আদালতের বিচারক জামিন নামঞ্জুর করে তাঁকে জেলা কারাগারে পাঠানোর নির্দেশ দিয়েছেন।

 


মন্তব্য