kalerkantho


জামালপুরে পিডিবির বিরুদ্ধে অবৈধভাবে লাইন সম্প্রসারণের অভিযোগ

জামালপুর প্রতিনিধি    

৫ ফেব্রুয়ারি, ২০১৭ ১৮:০৫



জামালপুরে পিডিবির বিরুদ্ধে অবৈধভাবে লাইন সম্প্রসারণের অভিযোগ

জামালপুরে পিডিবির নির্বাহী প্রকৌশলী অবৈধভাবে দাতা সংস্থা জাইকার সেন্ট্রাল জোন প্রকল্পের ১৭ খুঁটি উত্তোলন করেছেন। সেই খুটি এবং জেলা শহরের পুরাতন বিদ্যুৎ লাইন মেরামতের মালামাল দিয়ে অন্যায়ভাবে নতুন লাইন নির্মাণ কাজ চালিয়ে যাচ্ছেন।

এতে পল্লী বিদ্যুৎ কর্তৃপক্ষ মেলান্দহের ৫নম্বর চর এবং  ইসলামপুরের ৪ নম্বর চর এলাকার কৃষকদের সেচ পাম্পসহ পাঁচ শতাধিক গ্রাহককে বিদ্যুৎ সংযোগ দিতে পারছেন না। এর ফলে ওই দুটি গ্রামের প্রায় ৩০০ একর জমির বোরো চাষ ব্যাহতের আশঙ্কা করছেন চাষীরা।  

মেলান্দহ পৌর আওয়ামী লীগ সভাপতি, নাট্যকার আসাদুল্লাহ ফারাজী ও জুয়েল রানাসহ স্থানীয় কৃষকদের অভিযোগ এবং মামলা সুত্রে জানা গেছে, জামালপুর বিদ্যুৎ উন্নয়ন বোর্ড (পিডিবি) এর নির্বাহী প্রকৌশলী এসএম ইকবাল হোসেন স্থানীয় দালাল চক্রের মাধ্যমে মোটা অংকের উৎকোচের বিনিময়ে পুরাতন লাইন সংস্কারের মালামাল দিয়ে কর্তৃপক্ষের নির্দেশনা উপেক্ষা করে অন্যায়ভাবে নতুন লাইন সম্প্রসারণ কাজ চালিয়ে যাচ্ছেন। এতে জামালপুর জেলা শহরের ৫ নম্বর ফিডারের শেষ প্রান্ত  ৫ নম্বর চর রুস্তম আলী মাস্টার সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয় থেকে ইসলামপুর উপজেলার ৪ নম্বর চর নতুন পাড়া পর্যন্ত ২৯টি খুঁটিতে ১১ কেভিএ নতুন লাইন নির্মাণ শুরু করেন। এ অন্যায় কাজ বাস্তবায়নে তিনি কর্তৃপক্ষের বিনা অনুমতিতে দাতা সংস্থা জাইকার সেন্ট্রাল জোন প্রকল্পের নলেরচর শিশুপাড়া থেকে ১৭টি খুটি অন্যায়ভাবে উত্তোলন করে ওই নতুন লাইন সম্প্রসারণ কাজ শুরু করেন। ওই ২৯টি খুঁটির মধ্যে ১৭টি খুঁটি পুতার পর অবশিষ্ট ১২টি খুঁটি ও অনুসাঙ্গিক মালামাল পুরাতন লাইনের মেরামত কাজ হিসাবে দেখিয়ে নতুন লাইন নির্মাণ করে যাচ্ছেন। কর্তৃপক্ষের নির্দ্দেশনা মতে পুরাতন লাইনের মেরামত ব্যাতিত নতুন লাইন নির্মাণ করা যাবে না-এ মর্মে মালামাল বরাদ্দ পত্রের শর্তে উল্লেখ রয়েছে।  

এদিকে ৪ নম্বর চর নতুন পাড়া এলাকায় পল্লী বিদ্যুতায়ন করে প্রতিটি বাড়িঘরে মিটার স্থাপনের ওয়েরিং কাজ শেষ হয়েছে। অথচ পিডিবি নতুন বৈদ্যুতিক লাইন নির্মাণ করায় পল্লী বিদ্যুৎ কর্তৃপক্ষ কৃষি সেচ পাম্পসহ শতাধিক গ্রাহককে বিদ্যুৎ সংযোগ দিতে অপারগতা প্রকাশ করছেন।

তাই এলাকাবাসী পল্লী বিদ্যুৎ সংযোগ না পেয়ে ক্ষুব্ধ হয়ে উঠেন। এ নিয়ে হতাশাগ্রস্ত স্থানীয় কৃষক জুয়েল রানা জামালপুর পিডিবির নির্বাহী প্রকৌশলী এসএম ইকবাল হোসেনসহ সংশ্লিষ্ট পাঁচজনের বিরুদ্ধে নানা অনিয়ম দুর্নীতির অভিযোগে আদালতে মামলা দায়ের করেছেন। ওই মামলায় নির্বাহী প্রকৌশলী বিতরণ বিভাগ জামালপুর এবং বৈদ্যুতিক সরঞ্জাম পরিদপ্তরের পরিচালক জিতেন্দ্র চন্দ্র আচার্য্যসহ মোট ৫ জনকে আসামি করা হয়েছে। জামালপুর সাব জজ আদালতের মামল নং ২২/২০১৭ তারিখ ২৬/০১/১৭ইং।

এ বিষয়ে জামালপুর বিদ্যুৎ শ্রমিক লীগ (সিবিএ) সভাপতি সবুজ মিয়া ও সাধারণ সম্পাদক মুস্তাক আহম্মেদ এবং অপর গ্রুপের সভাপতি বজলুর রহমান ও সাধারণ সম্পাদক সাদা মিয়ার সাথে কথা হলে তারা জানান, জামালপুর পিডিবির নির্বাহী প্রকৌশলী এসএম ইকবাল হোসেন মোটা অঙ্কের আর্থিক সুবিধা নিয়ে ব্যক্তি স্বার্থ হাসিল করতে সেন্ট্রাল জোন প্রকল্পের খুঁটি এবং পুরাতন বিদ্যুৎ লাইনের মান উন্নয়নের মালামাল দিয়ে অবৈধ ভাবে নতুন লাইন নির্মাণ করছেন। এতে মেলান্দহ পল্লী বিদ্যুৎ কর্তৃপক্ষ কৃষি সেচ পাম্পসহ পাঁচ শতাধিক গ্রাহককে বিদ্যুত সংযোগ দিতে পারছেন না।

অপরদিকে এ প্রসঙ্গে জামালপুর পিডিবির নির্বাহী প্রকৌশলী এসএম ইকবাল হোসেন জানান, বিদ্যুৎ লাইন সম্প্রসারণ কাজে অনিয়ম, দুর্নীতি ও উৎকোচ গ্রহণের অভিযোগটি সঠিক নহে। সেন্ট্রান জোন প্রকল্পের এবং পুরাতান লাইন মেরামতের মালামাল দিয়ে বিভাগীয় সিদ্ধান্তে নতুন লাইন নির্মাণের কাজ শুরু করা হয়েছিল। তবে সিবিএ নেতা সাদা মিয়া ও তার সহযোগীরা অন্যায়ভাবে বিদ্যুত লাইন সম্প্রসারণের কাজ বন্ধ করে দিয়েছে।

এ ব্যাপারে জামালপুর পল্লী বিদ্যুত সমিতির জেনারেল ম্যানেজার পানা উল্লাহ জানান, মেলান্দহের ৫ নম্বর চর এবং ইসলামপুরের ৪ নম্বর চর এলাকা দুটি পল্লী বিদ্যুতের নির্ধারিত এলাকা। সেখানে পল্লী বিদ্যুতের লাইন সম্প্রসারণের কাজ সমাপ্তির পথে। ওইসব এলাকায় পিডিবির লাইন সম্প্রসারণের চলমান কাজটি সঠিক নয়। অথচ সেখানে পিডিবির লাইন সম্প্রসারণের কারণে নতুন বিদ্যুৎ সংযোগ দিতে কিছুটা সমস্যার সৃষ্টি হয়েছে।  

 


মন্তব্য