kalerkantho


ভারত বাংলাদেশের চমৎকার বন্ধু: শ্রিংলা

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

২ ফেব্রুয়ারি, ২০১৭ ১৬:৩১



ভারত বাংলাদেশের চমৎকার বন্ধু: শ্রিংলা

ভারত বাংলাদেশের চমৎকার বন্ধু বলে মন্তব্য করেছেন ভারতীয় হাইকমিশনার হর্ষ বর্ধন শ্রিংলা। দুই দেশের সম্পর্ক এখন অনন্য উচ্চতায়।

সেটা সম্ভব হয়েছে বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ও ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর একান্ত চেষ্টায়। আজ বৃহস্পতিবার দুপুরে ধামরাইয়ের বালিথায় অশোক লেল্যান্ডের কারিগরি সহায়তায় প্রতিষ্ঠিত ইফাদ অটোস লিমিটেডের গাড়ি সংযোজন কারখানা উদ্বোধন অনুষ্ঠানে তিনি এ কথা বলেন। শ্রিংলা বলেন, পদ্মা সেতু হবে ভারত-বাংলাদেশের লাইফ লাইন। ১৯৭১ সালে মহান মুক্তিযুদ্ধে বঙ্গবন্ধু শেখ মজিবুর রহমান ও ভারতের তৎকালীন প্রধানমন্ত্রী ইন্দিরা গান্ধীর হাত ধরে যে সম্পর্কের সূচনা হয়েছিলো, আজ সময়ের ব্যবধানে তা অনেক শক্তিশালী। যে কারনে বাংলাদেশের অবকাঠামো, রেল, নৌ, আকাশ ও সড়ক যোগাযোগ উন্নয়নে বাংলাদেশের পরিক্ষিত বন্ধু ভারত।

অনুষ্ঠানে ইফাদ গ্রুপের চেয়ারম্যান ইফতেখার আহমেদ টিপু বলেন, বর্তমানে বিদেশ থেকে গাড়ি আমদানি করতে বেশ সময় লাগে। এই কারখানা চালু হওয়ার ফলে ক্রেতার চাহিদা অনুযায়ী দ্রুততম সময়ে গাড়ি সরবরাহ করা সম্ভব হবে। যেখানে বছরে ১০ হাজার গাড়ি সংযোজন করা সম্ভব হবে বলে আশা প্রকাশ করেন তিনি। ইফাদ অটোস লিমিটেডের ব্যবস্থাপনা পরিচালক তাসকিন আহমেদ বলেন,বেসরকারি উদ্যোগে ইতিহাসে নব দিগন্তের সূচনা করেছে ইফাদ অটোস লিমিটেড।

যে কারণে  ইফাদ অটোস লিমিটেড গাড়ি সংযোজন কারখানা চালু করায় দেশি-বিদেশি উদ্যোক্তারা উৎসাহিত হবেন।

ইফাদ গ্রুপের চেয়্যারম্যান ব্যবস্থাপনা পরিচালক তানভীর আহমেদ বলেন, বাংলাদেশে বিগত ১০ বছরে ভারী যানবাহনের ক্ষেত্রে এক বৈপ্লবিক পরিবর্তন সাধিত হয়েছে। চাহিদা বাড়ার সঙ্গে সঙ্গে আমদানিকৃত গাড়িতে আমদানি বাবদ বিপুল পরিমাণ বৈদেশিক মুদ্রা ব্যয় হচ্ছে। বিষয়টি বিবেচনায় রেখে ইফাদ অটোস লিমিটেড বৈদেশিক মুদ্রা সাশ্রয় ও দেশে শিল্প বান্ধব অবস্থায় পরিপ্রেক্ষিত এই সংযোজন কারখানা স্থাপন করা হয়েছে। এই কারখানায় বিভিন্ন মডেলের এসি-নন এসি, বাস, ট্রাক, কার্ভাড ভ্যান সংযোজন হবে, তাই তার উৎপাদন খরচ আমদানিকৃত তৈরি গাড়ির চেয়েও কম হবে। এ কারণে গাড়ি ক্রেতারাও এই সুবিধা ভোগ করবেন। ভারতীয় হাইকমিশনার হর্ষ বর্ধন শ্রিংলা কারখানা প্রাঙ্গনে একটি গাছের চারা রোপণ করেন ও কারখানা ঘুরে দেখেন।

 


মন্তব্য