kalerkantho


কেরানীগঞ্জে ভুয়া দলিল দিয়ে নাম খারিজ, একজনের সাজা

কেরানীগঞ্জ (ঢাকা) প্রতিনিধি    

২ ফেব্রুয়ারি, ২০১৭ ১২:৪৬



কেরানীগঞ্জে ভুয়া দলিল দিয়ে নাম খারিজ, একজনের সাজা

ঢাকার কেরানীগঞ্জে ভুয়া দলিলের মাধ্যমে নাম খারিজ করার দায়ে প্রাণ কৃষ্ণ (৫০) নামের এক ব্যক্তিকে পনের দিনের বিনাশ্রম কারাদণ্ড দিয়েছেন ভ্রাম্যমাণ আদালত। গতকাল বুধবার দুপুরে কেরানীগঞ্জ সহকারী কমিশনার (ভূমি) ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট পারভেজুর রহমান জুমন এ রায় দেন।

ভূমি অফিসের কানুনগো মীর মোয়াজ্জেম হোসেন জানান, কেরানীগঞ্জের রুহিতপুর ইউনিয়নের ঠাকুরপুর মৌজার ১৩৬ নম্বর খাতিয়ানের ১২৮ নম্বর দাগের ২৬০০  অযুতাংশ জমি ওপর জনৈক মধু সূদন সরকার গং ওই অফিসে গত ২০১৫ সালের ৩০ ডিসেম্বর একটি মিসকেইস করেন। মিসকেইসটি প্রায় দুই বছর পর্যালোচনা করে গতকাল বুধবার রায় প্রদান করা হয়।

কেরানীগঞ্জ সহকারী কমিশনার (ভূমি) ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট পারভেজুর রহমান জুমন জানান, ওই অফিসের আওতায়ধীন রুহিতপুর ইউনিয়নের ঠাকুরপুর মৌজার ১৩৬ নম্বর খাতিয়ানের ১২৮ নম্বর দাগের ২৬০০ অযুতাংশ জমি প্রাণ কৃষ্ণ নামের এক ব্যক্তি ২০০৫ সালে দুটি নকল দলিলের মাধ্যমে খারিজ করে নেন মোহর চান। পরে জমির মূল মালিক মধু সূদন সরকার জানতে পেরে ২০১৫ সালে একটি মিসকেইশ করে জমির মূল কাগজপত্র দাখিল করেন। এ মামলায় বিবাদীকে নোটিশের মাধ্যমে ডেকে মিসকেইশটির ব্যাপারে অবগত করা হয়। বিবাদীর ছেলে প্রাণ কৃষ্ণ তাদের খারিজ সত্য প্রমাণ করার জন্য দুটি দলিল প্রদান করেন। ওই নালিশি সম্পত্তির দুই পক্ষের দলিল দেখে জানা গেছে বাদীপক্ষের মূল কাগজের সঙ্গে জমির মিল থাকলেও বিবাদী পক্ষের দেওয়া দুটি দলিলের সঙ্গে কোনো মিল নাই এবং দলিল দুটি নকল। নকল দলিল দিয়ে অন্যের জমি খারিজ করে নেওয়ার অপরাধে বিবাদীর ছেলেকে ১৫ দিনের বিনাশ্রম কারাদণ্ড প্রদান করে নালিশি সম্পত্তিটি মূল খতিয়ানভুক্ত করার আদেশ দেন। পরে দক্ষিণ কেরানীগঞ্জ থানাধীন কোনাখোলা ফাঁড়ির পুলিশের সহযোগিতায় তাকে কারাগারে প্রদান করা হয়।

এ বিষয়ে বিবাদীর ছেলে গ্রেপ্তারকৃত প্রাণ কৃষ্ণর কাছে জানতে চাইলে তিনি বলেন, "আমার বাবা মোহর চান গুরুতর অসুস্থ। তার পক্ষে আমি এ মামলার জবাব দিতে এসেছি। দলিল দুটি আমরা দালালের মাধ্যমে করেছিলাম। "  

 


মন্তব্য