kalerkantho


ছাত্রলীগ নেতাকে কুপিয়ে জখম

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

১ ফেব্রুয়ারি, ২০১৭ ২২:৪৪



ছাত্রলীগ নেতাকে কুপিয়ে জখম

পিরোজপুরের মঠবাড়িয়ায় রাতের আঁধারে জুয়েল হাসান রাকিব নামে এক ছাত্রলীগ নেতাকে ধারালো অস্ত্র দিয়ে কুপিয়ে গুরুতর জখম করেছে প্রতিপক্ষ সন্ত্রাসীরা। গতকাল মঙ্গলবার দিবাগত রাত নয়টার দিকে মঠবাড়িয়া পৌরসভা ভবনের সম্মূখ সড়কে ওই ছাত্রলীগ নেতা সন্ত্রাসী হামলার শিকার হন।

তাকে গুরুতর অবস্থায় বরিশাল শেরে বাংলা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে স্থানান্তর করা হয়েছে। পূর্ব শত্রুতার জের ধরে এ হামলার ঘটনা ঘটেছে বলে ধারনা করা হচ্ছে।

আহত রাকিব মঠবাড়িয়া সরকারী কলেজের অর্থনীতি বিভাগের প্রথমবর্ষের শিক্ষার্থী। সে কলেজ শাখা ছাত্রলীগের উপ শিক্ষা বিষয়ক সম্পাদক এবং মঠবাড়িয়া পৌর শহরের কলেজ পাড়ার বাসিন্দা মো. বাদশা মিয়ার ছেলে। আহত ছাত্রলীগ নেতা রাকিবের সহপাঠি বন্ধু মেহেদী হাসান হৃদয় জানান, গতকাল মঙ্গলবার রাত নয়টার দিকে তারা দুই বন্ধু মিলে বাসায় ফিরছিলেন। এসময় পৌরসভার সম্মূখ সড়কে ৮/১০ জনের একদল যুবক তাদের ঘিরে ধরে রাকিবকে মারপিট শুরু করে। এসময় তার বন্ধু মেহেদী বাঁধা দিলে তাকেও মারধর করা হয়। একপর্যায়ে সশস্ত্র যুবকরা ধারালো অস্ত্র দিয়ে ছাত্রলীগ নেতা জুয়েল হাসান রাজুকে কুপিয়ে সড়কে ফেলে রেখে দ্রুত পালিয়ে যায়।

ধারালো অস্ত্রের আঘাতে তার মাথায় গুরুতর জখম হয়।

মঠবাড়িয়া সরকারি কলেজ শাখা ছাত্রলীগের সভাপতি সমিজান ফরাজি ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে জানান, আহত রাকিবকে উদ্ধার করে প্রথমে মঠবাড়িয়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়। পরে তার অবস্থার অবনতি হলে আশংকাজনক অবস্থায় তাকে বরিশাল শেরে বাংলা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে স্থানান্তর করা হয়। হামলার ঘটনায় ৮/১০জনকে অভিযুক্ত করে মামলা দায়েরের প্রস্তুতি চলছে। এ বিষয়ে মঠবাড়িয়া থানার অফিসার ইনচার্জ খন্দকার মোস্তাফিজুর রহমান সাংবাদিকদের জানান, এ ঘটনায় এখনও থানায় কেউ লিখিত অভিযোগ দায়ের করেনি। অভিযোগ পেলে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।


মন্তব্য