kalerkantho


গাংনীতে উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতির বিরুদ্ধে মুক্তিযোদ্ধাদের বিক্ষোভ

মেহেরপুর প্রতিনিধি   

১ ফেব্রুয়ারি, ২০১৭ ১৫:৩৭



গাংনীতে উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতির বিরুদ্ধে মুক্তিযোদ্ধাদের বিক্ষোভ

মেহেরপুরের গাংনী উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি সাহিদুজ্জামান খোকনকে রাজাকারের সন্তান উল্লেখ করে আজ বিক্ষোভ মিছিল, মানববন্ধন ও সমাবেশ করেছে মুক্তিযোদ্ধারা। গাংনী পৌর মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডার হাবিবুর রহমান হবিকে হুমকি দেওয়ার প্রতিবাদে এ কর্মসূচি দাবি মুক্তিযোদ্ধাদের।

তবে উপজেলা আওয়ামী লীগ সভাপতি দাবি করেছেন চলমান ই্উএনও বিরোধী আন্দোলন দমাতে একটি মহল উঠেপড়ে লেগেছে।  

আজ সকাল সাড়ে ১১টার দিকে গাংনী উপজেলা পরিষদ চত্বর থেকে জেলা মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডার বশির আহমেদের নেতৃত্বে একটি বিক্ষোভ মিছিল বের করা হয়। মিছিলটি গাংনী শহরের বিভিন্ন সড়ক প্রদক্ষিণ শেষে একই স্থানে গিয়ে শেষ হয়।

মিছিল শেষে গাংনী উপজেলা পরিষদের শহীদ মিনার চত্বরে সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়। জেলা মুক্তিযোদ্ধা সংসদের সাংগঠনিক কমান্ডার আমিরুল ইসলাম, গাংনী উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডার মুনতাজ আলী, পৌর মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডার হবিবুর রহমানসহ জেলা ও উপজেলা পর্যায়ের মুক্তিযোদ্ধারা কর্মসূচীতে অংশ নেন।

সমাবেশে মুক্তিযোদ্ধা জেলা কমান্ডার বশির আহম্মেদ বলেন, তেরাইল গ্রামের আব্দুল গণি রাজাকারের সন্তান সাহিদুজ্জামান খোকন এখন গাংনী উপজেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি। একজন রাজাকারের সন্তান হয়ে গত ১৬ ডিসেম্বর তিনি মুক্তিযোদ্ধা সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে উপস্থিত হলে মুক্তিযোদ্ধারা তাকে মঞ্চে উঠতে বাধা প্রদান করেন। তারপর থেকে সাহিদুজ্জামান খোকন মুক্তিযোদ্ধাদের হুমকি দিয়ে আসছেন বলে অভিযোগ করেন তিনি। তারই প্রতিবাদে এই কর্মসূচি।

তার বিচার না হওয়া পর্যন্ত কর্মসূচি অব্যাহত থাকবে।  

তবে গাংনী উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি সাহিদুজ্জামান খোকন বলেন, বঙ্গবন্ধুর আদর্শে অনুপ্রাণিত হয়ে দির্ঘদিন ধরে আওয়ামী রাজনীতির সাথে জড়িত। ব্যক্তিগত ভাবে আমি মুক্তিযোদ্ধাদের সম্মান করি। যাকে নিয়ে আমার বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্র করা হয়েছে তার সাথে আমার বহুদিন দেখাও হয়নি। বর্তমান ইউএনওর বিরুদ্ধে আমাদের আন্দোলন চলছে। ইউএনওকে খুশি করে তার সাথে টাকাপয়সা লুটেপুটে খাওয়ার জন্য স্থানীয় সংসদ সদস্য মকবুল হোসেন আমার বিরুদ্ধে মুক্তিযোদ্ধাদের ব্যবহার করছেন। যাতে ইউএনও বিরোধী চলমান আন্দোলন ব্যহত হয়।  

 


মন্তব্য