kalerkantho

রবিবার। ৪ ডিসেম্বর ২০১৬। ২০ অগ্রহায়ণ ১৪২৩। ৩ রবিউল আউয়াল ১৪৩৮।


পার্বতীপুরে অবৈধ বালু উত্তোলনের শিকার দুই স্কুলছাত্রী!

পার্বতীপুর (দিনাজপুর) প্রতিনিধি   

২০ অক্টোবর, ২০১৬ ২০:৪৪



পার্বতীপুরে অবৈধ বালু উত্তোলনের শিকার দুই স্কুলছাত্রী!

উপজেলার পলাশবাড়ি ইউনিয়নে শুকিয়ে যাওয়া করতোয়া নদীর বালু ধসে একটি খালে পড়ে দুই স্কুল ছাত্রীর মর্মান্তিক মৃত্যু হয়েছে। আজ বৃহস্পতিবার দুপুরের এই ঘটনায় এলাকায় শোকের ছায়া নেমে এসেছে।

বিক্ষুব্ধ এলাকাবাসী অবৈধভাবে বালু উত্তেলনকারী মাজেদ মেম্বারকে অবিলম্বে গ্রেফতার করে কঠোর শাস্তি প্রদানের দাবী জানিয়েছেন।

এলাকাবাসী সূত্রে জানা গেছে, পলাশবাড়ী ইউনিয়নের নূরুল হুদা উচ্চ বিদ্যালয়ের ১০ম শ্রেনীর ছাত্রী সুমাইয়া রহমান(১৫) এবং জেএসসি পরীক্ষার্থী মোছাঃ হামিদা বেগম (১৩) বেলা ২টার দিকে শুকিয়ে যাওয়া করতোয়া নদীর ফুলের ঘাট এলাকা দিয়ে হেটে যাচ্ছিলেন। এসময় খালের কিনারার বালু ধসে পাশের খালে ডুবে যায় তারা। এলাকার লোকজন সুমাইয়াকে মৃত অবস্থায় উদ্ধার করে এবং হামিদা বেগমকে ল্যাম্ব হাসপাতালে নিয়ে যায়। সেখানে কর্তব্যরত ডাক্তার তাকে মৃত ঘোষনা করেন। নিহত সুমাইয়া রহমানের পিতার নাম মোঃ আজাহারুল ইসলাম বাবু ও হামিদা বেগমের বাবার নাম মোঃ হামিদুল ইসলাম। উভয়ের বাড়ী পলাশবাড়ী ইউনিয়নের মধ্য আটরাই গ্রামে।

এলাকাবাসীর অভিযোগ, পাশের বদরগঞ্জ উপজেলার বিষ্ণুপুর গ্রামের মাজেদ মেম্বার দীর্ঘদিন ধরে ফুলের ঘাট এলাকায় শুকিয়ে যাওয়া করতোয়া নদীতে (খাস জমিতে) বালু উত্তেলন করে আসছেন। বালু উত্তেলন করায় সেখানে ৪০/৫০ফুট গভীর খালের সৃষ্টি হয়। সেই খালে পড়ে দুই কিশোরীর মর্মান্তিক মৃত্যু ঘটে।

পলাশবাড়ী ইউনিয়নের চেয়ারম্যান মোফাখ্যারুল ইসলাম ফারুক জানান, মাজেদ মেম্বার অবৈধভাবে দীর্ঘদিন ধরে বালু উত্তেলন করে আসছেন। ঘটনাস্থলে এসআই মোস্তফা, এএসআই মতিউর রহমানসহ দুই পুলিশ কনেস্টবল কর্তব্য পালন করছেন।

বালু উত্তেলনের অভিযোগ সম্পর্কে জানার জন্য অভিযুক্ত মাজেদ মেম্বারকে একাধিকবার মুঠো ফোনে যোগাযোগের চেষ্টা করলেও তার মোবাইলটি (০১৭১৭০৬০৫৮৬) বন্ধ পাওয়া যায়।

এদিকে পার্বতীপুর মডেল থানার ওসি তদন্ত মোঃ বেলাল হোসেন বলেন, এ ঘটনায় কোন মামলা হবে না। কারন তারা নিজে নিজে মারা গেছেন।


মন্তব্য