kalerkantho

শনিবার । ৩ ডিসেম্বর ২০১৬। ১৯ অগ্রহায়ণ ১৪২৩। ২ রবিউল আউয়াল ১৪৩৮।


নড়াইলকে ভিক্ষুকমুক্ত জেলা ঘোষণা করলেন খুলনা বিভাগীয় কমিশনার

নড়াইল প্রতিনিধি    

১৮ অক্টোবর, ২০১৬ ১৭:৩৬



নড়াইলকে ভিক্ষুকমুক্ত জেলা ঘোষণা করলেন খুলনা বিভাগীয় কমিশনার

ঢাকা থেকে নড়াইলে ঢোকার প্রবেশমুখে কালনা ফেরীঘাট এলাকায় সাইন বোর্ড প্রতিস্থাপনের মধ্যে দিয়ে নড়াইল জেলাকে ভিক্ষুকমুক্ত করার ঘোষণা দিলেন খুলনা বিভাগীয় কমিশনার মোঃ আবদুস সামাদ। আজ মঙ্গলবার দুপুরে কালনা ফেরীঘাট এলাকায় এক অনাড়ম্বর অনুষ্ঠানের মধ্যে দিয়ে একটি সাইনবোর্ড স্থাপনের মধ্যে দিয়ে দেশের প্রথম জেলা হিসেবে নড়াইলকে ভিক্ষুকমুক্ত জেলা ঘোষণা করা হয়।

 এ সময় তিনি(খুলনা বিভাগীয় কমিশনার) ক্ষুদ্র ব্যবসায়ী কাশিপুর গ্রামের (সদ্য ভিক্ষাবৃত্তি পেশা পরিবর্তন করা) অন্ধ ফারুকের কাছ থেকে খাদ্যপণ্য ক্রয় করেন।

খুলনা বিভাগীয় কমিশনার মোঃ আবদুস সামাদ তার প্রতিক্রিয়ায় বলেন, আমরা খুলনা বিভাগের ১০ জেলাকেই ভিক্ষুকমুক্ত করতে চাই। নড়াইল জেলা থেকেই মূলত কাজটি শুরু হয়েছে। তাই এটিকেই প্রথম ভিক্ষুকমুক্ত ঘোষণা করা হলো।

এ সময় জেলার লোহাগড়াকে ভিক্ষুকমুক্ত করতে নিরলসভাবে কাজ করে যাওয়া উপজেলা চেয়ারম্যান আলহাজ্ব সৈয়দ ফয়জুল আমির লিটু বলেন, আমাদের দীর্ঘদিনের প্রচেষ্ঠার একটি বাস্তবায়ন ঘটতে যাচ্ছে। আগামী দিনে লোহাগড়া উপজেলার প্রত্যেকটা কর্মক্ষম লোক কাজ করে আয় করবে।

জেলাকে ভিক্ষুকমুক্ত করার উদ্যোক্তা নড়াইলের অতিঃ জেলা প্রশাসক (সার্বিক) সিদ্দিকুর রহমান বলেন, বিভাগীয় কমিশনার মহোদয়ের এই ঘোষণার ফলে আমাদের দায় আরো বেড়ে গেল। আমাদের জেলা প্রশাসনের সকল কাজই হবে দরিদ্র বিমোচনের জন্য। এখন থেকে প্রকৃত দরিদ্র জনগোষ্ঠিই সরকারী-বেসরকারী সকল অর্থ সাহায্য পাবে। তিনি ভিক্ষুকমুক্ত জেলা গঠনে সকল বিত্তবানকে এগিয়ে আসার আহ্বান জানান।

অনুষ্ঠানে অন্যান্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন নড়াইল জেলা প্রশাসক মোঃ হেলাল মাহমুদ শরীফ, লোহাগড়া উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোঃ সেলিম রেজা, লোহাগড়া উপজেলা চেয়ারম্যান আলহাজ্ব সৈয়দ ফয়জুল আমির লিটু, লোহাগড়া ইউনিয়নের চেয়ারম্যান সিকদার নজরুল ইসলাম।


মন্তব্য