kalerkantho

শুক্রবার । ৯ ডিসেম্বর ২০১৬। ২৫ অগ্রহায়ণ ১৪২৩। ৮ রবিউল আউয়াল ১৪৩৮।


ইসলামপুরে তিন শিক্ষকের ডিলারশীপ বাতিল

জামালপুর প্রতিনিধি    

১৭ অক্টোবর, ২০১৬ ১৬:৫৯



ইসলামপুরে তিন শিক্ষকের ডিলারশীপ বাতিল

দৈনিক কালের কণ্ঠ পত্রিকায় “শিক্ষকরা যখন ডিলার” শিরোনামে সংবাদ প্রকাশের পরদিন থেকে ইসলামপুরের তিন শিক্ষকের খাদ্যবান্ধব কর্মসূচির ডিলারশীপ বাতিল করা হয়েছে। এ ছাড়াও এ উপজেলার গোয়ালেরচর ও পাথর্শী ইউনিয়নে ১০ টাকা কেজির চাল বিতরণ শুরু হয়েছে।

উপজেলা প্রশাসন ও স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, ইসলামপুরে ১০ টাকা কেজির চাল বিতরণের জন্য হতদরিদ্রদের তালিকা তৈরিতে অনিয়মের অভিযোগে গোয়ালেরচর ও পাথর্শী ইউনিয়নসহ কয়েকটি ইউনিয়নে সেপ্টেম্বর মাসের চাল বিতরণ স্থগিত করেছিল উপজেলা প্রশাসন। এ ছাড়াও ইসলামপুরের তিনজন শিক্ষক তাদের শিক্ষকতা পেশার তথ্য গোপন করে চালের ডিলার হিসাবে নিয়োগ পেয়েছিলেন। এসব ঘটনার বণর্ণায় গত ১২ অক্টোবর দৈনিক কালের কণ্ঠ পত্রিকায় “রকমারি ছলচাতুরী, শিক্ষকরা যখন ডিলার” শিরোনামে একটি সংবাদ প্রকাশ হয়। এর পর ইসলামপুর উপজেলা  প্রশাসন ও খাদ্য নিয়ন্ত্রক অফিসের কর্মকর্তারা ওই দুই ইউনিয়নসহ অন্যান্য ইউনিয়নের হতদরিদ্র তালিকা পুনরায় যাছাই-বাছাই করে সেপ্টেম্বর মাসের চাল বিতরণ শুরু করেন। অপরদিকে ডিলাররা ঠিকমত দোকান খোলা না রাখা ও হতদরিদ্ররা চাল নিতে গিয়ে হয়রানির শিকার হওযার অভিযোগ এবং চাকরি থাকা সত্বেও তথ্য গোপন করে শিক্ষকতার পাশাপাশি খাদ্যবান্ধব কর্মসূচির ডিলার হওয়ার অভিযোগে জেলা ও উপজেলা খাদ্য নিয়ন্ত্রক খাদ্য শস্য বিতরণ নীতিমালা-২০১৬ এর ডিলার নিয়োগের অঙ্গিকার নামার শর্ত ভঙ্গের অপরাধে ইসলামপুরের তিন শিক্ষকের ডিলারশীপ বাতিল করেন কর্মকর্তারা।

এ ব্যাপারে উপজেলা খাদ্য পরিদর্শক বেলাল হোসেন জানান, শিক্ষকতা পেশার তথ্য গোপন করে ডিলার হওয়ায় ইসলামপুরের নোয়ারপাড়া ইউনিয়নের একতা বাজারের ডিলার কাজলা খলিলুর রহমান উচ্চ বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষক এস এম আছাদুল্লাহ, উলিয়া বাজারের ডিলার সোনামুখি সররকরি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক সাইদুর রহমান এবং সাপধরীর ইউনিয়নের ডিলার সাপধরী উচ্চ বিদ্যালয়ের শিক্ষক খায়রুল মমিনের ডিলারশীপ বাতিল করা হয়েছে।

এদিকে ইসলামপুরের ইউএনও এহছানুল মামুন জানান, খাদ্যবান্ধব কর্মসূচির আওতায় ইসলামপুরের ১২টি ইউনিয়নে ৫১ জন ডিলারের মাধ্যমে ২৩ হাজার ২৫ জন সুবিধাভোগী পরিবারের মধ্যে ১০ টাকা কেজি মূলে চাল বিতরণ অব্যাহত রয়েছে।


মন্তব্য