kalerkantho

রবিবার। ৪ ডিসেম্বর ২০১৬। ২০ অগ্রহায়ণ ১৪২৩। ৩ রবিউল আউয়াল ১৪৩৮।


পাথরঘাটায় বাল্যবিয়েতে সহযোগিতার দায়ে দুজনের কারাদণ্ড

পাথরঘাটা (বরগুনা) প্রতিনিধি   

১২ অক্টোবর, ২০১৬ ২৩:০১



পাথরঘাটায় বাল্যবিয়েতে সহযোগিতার দায়ে দুজনের কারাদণ্ড

বরগুনার পাথরঘাটায় এক কিশোরীকে বিয়ে দেওয়ার প্রস্তুতিকালে দুজনকে আটক করে ১৫ দিনের কারাদণ্ড দিয়েছেন ভ্রাম্যমাণ আদালত। আজ বুধবার রাত ৯টার দিকে পাথরঘাটা সহকারি কমিশনার (ভূমি) ও নির্বাহী ম্যাজিষ্ট্রেট মো. ইকবাল হোসেন এ আদেশ দেন।

ওই কিশোরী অষ্টম শ্রেণির ছাত্রী।
 
বাল্য বিয়েতে সহযোগিতার দায়ে দণ্ডপ্রাপ্তরা হলেন- পাথরঘাটা উপজেলার কাকচিড়া ইউনিয়নের রুপদোন গ্রামের (কনের) মেয়ের চাচাতো ভাই মো. রাসেল ও ফুফা বরগুনা সদর উপজেলার চরমাইঠা এলাকার গোলাম রাজ্জাক। তবে প্রশাসন যাওয়ার আগেই ছাত্রী কারিমার অধিকাংশ নিকটতম আত্মীয়-স্বজন পালিয়ে যায়।
 
এ ব্যাপারে নির্বাহী ম্যাজিষ্ট্রেট মো. ইকবাল হোসেন কালের কণ্ঠকে জানান, উপজেলার কাকচিড়া ইউনিয়নের রুপদোন আমিরাবাদ মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের অষ্টম শ্রেণির ছাত্রী ও রুপদোন গ্রামের নেছার উদ্দিনের মেয়ে কারিমাকে বরগুনা সদরের মো. শহিদ খানের ছেলে মো. সুমনের (২০) সঙ্গে বিয়ে দেওয়ার প্রস্তুতি চলছে। এমন সংবাদের ভিত্তিতে সরেজমিনে গিয়ে বিয়ের সকল প্রস্তুতি পাওয়ায় কারিমার ফুফা আ. রাজ্জাক ও চাচাতো ভাই মো. রাসেল অভিভাবক দাবি করায় তাদেরকে বাল্যবিয়ে নিরোদ আইনের ১৯২৯ সনের ৬ ধারা মতে ১৫ দিনের কারাদণ্ড দেওয়া হয়েছে।  

তিনি আরও জানান, প্রশাসন যাওয়ার খবর শোনার পর বর পক্ষ কনের বাড়িতে আসেনি।  


মন্তব্য