kalerkantho


ছয় জেলের কারাদণ্ড, বিপুল পরিমাণ জাল জব্দ

ইলিশ ধরার দায়ে ভোলায় ১১ জেলে আটক

ভোলা প্রতিনিধি    

১২ অক্টোবর, ২০১৬ ১৭:০৯



ইলিশ ধরার দায়ে ভোলায় ১১ জেলে আটক

নিষেধাজ্ঞা অমান্য করে আজ বুধবার ভোলার মেঘনা নদীতে ইলিশ ধরার দায়ে ১১ জেলেকে আটক করা হয়েছে। এদের মধ্যে ছয় জেলেকে এক বছর করে কারাদণ্ড দেওয়া হয়।

এ ছাড়া ১৪ হাজার মিটার অবৈধ জাল জব্দ করা হয়েছে।

ভ্রাম্যমাণ আদালত সূত্র জানায়, কোস্টগার্ড ও মৎস্য বিভাগের একটি দল আজ বুধবার দুপুরে ভোলা সদর উপজেলার মেঘনা নদীতে অভিযান চালায়। এ সময় ভাংতির খাল, রামদাসপুর এবং ভোলার খাল পয়েন্টে অবৈধভাবে ইলিশ শিকারের দায়ে ১১ জেলেকে আটক করা হয়। এদের মধ্যে ছয় জেলে আবুল কাসেম, আবু তাহের, আবদুল, সোহেল, রিয়াজ এবং ফারুককে ভ্রাম্যমাণ আদালতে সোপর্দ করা হলে আদালতের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট কামাল হোসেন তাদেরকে এক বছর করে কারাদণ্ড প্রদান করেন। বাকি পাঁচজন শিশু হওয়ায় তাদেরকে ছেড়ে দেওয়া হয়। ভোলা সদর উপজেলার জ্যেষ্ঠ মৎস্য কর্মকর্তা আসাদউজ্জামান এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

এদিকে, বোরহানউদ্দিন উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা আ. কুদদূস জানান, তাঁর নেতৃত্বে ভ্রাম্যমাণ আদালত সকাল ১১টা থেকে বিকেল ৩টা পর্যন্ত উপজেলার মেঘনা ও তেঁতুলিয়া নদীতে অভিযান চালিয়ে ১২ হাজার মিটার অবৈধ জাল জব্দ করেন। যার বাজার মূল্য প্রায় ৯ লাখ টাকা। এ সময় জেলেরা নৌকা ফেলে পালিয়ে যান।

তিনি আরো জানান, একই সময় নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট নূরে আলম সিদ্দিকি ও উপজেলা মৎস্য কর্মকর্তা রুহুল কুদ্দুসের নেতৃত্বে অপর ভ্রাম্যমাণ আদালত তেঁতুলিয়া নদীতে অভিযান চালিয়ে দুই হাজার মিটার অবৈধ কারেন্ট জাল জব্দ করেন। যার মূল্য প্রায় এক লাখ টাকা। পরে জব্দকৃত জাল আগুনে পুড়িয়ে ফেলা হয়।     

জেলা মৎস্য কর্মকর্তা রেজাউল করিম জানান, ১২ অক্টোবর থেকে ২ নভেম্বর পর্যন্ত ২২ দিন ইলিশের প্রধান প্রজনন মৌসুম হওয়ায় ইলিশ ধরা, বিক্রি এবং মজুদ নিষিদ্ধ করেছে মৎস্য অধিদপ্তর।


মন্তব্য