kalerkantho

বৃহস্পতিবার । ৮ ডিসেম্বর ২০১৬। ২৪ অগ্রহায়ণ ১৪২৩। ৭ রবিউল আউয়াল ১৪৩৮।


আইন অমান্য, পাথরঘাটায় ১২ জেলের কারাদণ্ড

পাথরঘাটা (বরগুনা) প্রতিনিধি   

১২ অক্টোবর, ২০১৬ ১১:৩৫



আইন অমান্য, পাথরঘাটায় ১২ জেলের কারাদণ্ড

বরগুনার পাথরঘাটায় ভ্রাম্যমাণ আদালত ১২ জেলেকে মৎস্য আইন অমান্য করে মাছ ধরায় একমাসের কারাভোগের শাস্তি প্রদান করেছেন। পাথরঘাটা উপজেলা নির্বাহী অফিসার ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মো. রবিউল ইসলাম এ শাস্তি প্রদান করেন।

ইলিশ সম্পদ রক্ষায় সরকারের ২২ দিনব্যাপী নিষেধাজ্ঞার প্রথম দিনে তিনটি অভিযানে ৮৭ হাজার মিটার জাল, ৬০ কেজি ইলিশ মাছ, মাছ ধরার ট্রলার/নৌকা জব্দ করা হয়েছে।

উপজেলা নির্বাহী অফিসার জানান, মৎস্য আইন অমান্য করে নদীতে মাছ ধরার অপরাধে আটক ১২ জেলেকে এক মাসের বিনাশ্রম কারাভোগের আদেশ প্রদান করা হয়েছে। তাদের ১০ জনের বাড়ি পাথরঘাটা উপজেলার চরদুয়ানী ইউনিয়নে ও দুজন পিরোজপুরের মঠবাড়িয়া ও ভান্ডারিয়া উপজেলায়।

পাথরঘাটা উপজেলা মৎস্য কর্মকর্তা মো. মুরাদ হোসেন প্রামানিক জানান, গত ১১ তারিখ মধ্যরাত থেকে বিষখালী ও বলেশ্বর নদে পুলিশ, কোস্ট গার্ড ও মৎস্য বিভাগ পৃথকভাবে আভিযান পরিচালনা করে।

অভিযানে চরদুয়ানী নৌ পুলিশ ফাঁড়ির পুলিশ বলেশ্বর নদ থেকে মাছ ধরারত ১২ জেলে, ৫০ হাজার মিটার জাল, ট্রলার ও ৫০ কেজি ইলিশ মাছ, কাকচিড়া নৌ পুলিশ ফাঁড়ি বিষখালী নদে অভিযান চালিয়ে ১৭ হাজার মিটার জাল এবং মৎস্য কর্মকর্তার নেতৃত্বে অভিযানে ১০ হাজার মিটার জাল ও ১০ কেজি ইলিশ মাছ জব্দ করে নিয়ে আসে। জব্দকৃত মাছ এতিমখানায় বিতরণ করা হয়েছে এবং জাল পুড়িয়ে ফেলা হয়েছে বলে মৎস্য কর্মকর্তা সাংবাদিকদের জানিয়েছেন।

উল্লেখ্য, সরকার ইলিশ সম্পদ রক্ষার উদ্দেশ্যে ইলিশের প্রধান প্রজননকাল বিবেচনায় আশ্বিন মাসের পূর্ণিমার আগে ৪ দিন, পূর্ণিমার দিন ও এর পরের ১৭ দিন মোট ২২ দিবসের নিষেধাজ্ঞা জারি করেছে। এ সময় ইলিশ ধরা, বিপণন, প্রদর্শন, পরিবহন বা মজুদ করা মৎস্য আইনে নিষেধ করা হয়েছে।


মন্তব্য