kalerkantho

মঙ্গলবার। ২১ ফেব্রুয়ারি ২০১৭ । ৯ ফাল্গুন ১৪২৩। ২৩ জমাদিউল আউয়াল ১৪৩৮।


লক্ষ্মীপুরে তরুণীকে হত্যার চেষ্টা: বিএমএ সভাপতিসহ দুজনের বিরুদ্ধে মামলা

লক্ষ্মীপুর প্রতিনিধি   

৯ অক্টোবর, ২০১৬ ২৩:৪৫



লক্ষ্মীপুরে তরুণীকে হত্যার চেষ্টা: বিএমএ সভাপতিসহ দুজনের বিরুদ্ধে মামলা

লক্ষ্মীপুরে ফারহানা আক্তার নামে এক তরুণীকে কুপিয়ে হত্যার চেষ্টার ঘটনায় জেলা পরিবার-পরিকল্পনা বিভাগের (ভারপ্রাপ্ত) উপ-পরিচালক ও বিএমএ নেতা ডা. আশফাকুর রহমান মামুন এবং অজ্ঞাত ব্যক্তির নামে মামলা হয়েছে। আজ রবিবার সন্ধ্যা ৬টার দিকে ওই তরুণী বাদী হয়ে সদর থানায় এ মামলা দায়ের করেন। ডা. মামুন বাংলাদেশ মেডিক্যাল এসোসিয়েশন (বিএমএ) জেলা শাখার সভাপতি। এদিকে আহত ফারহানা সুস্থ না হওয়া পর্যন্ত জেলা মহিলা বিষয়ক কর্মকর্তা সুলতানা জোবেদা খানমের তত্তাবধানে রাখার জন্য নির্দেশ দিয়েছেন জেলা প্রশাসক মো. জিল্লুর রহমান চৌধুরী।

মামলার বাদী ফারহানা আক্তার পাবনার ভাঙ্গুরা উপজেলার আদাবাড়িয়া গ্রামের আবদুর রহমান খাঁনের মেয়ে এবং লক্ষ্মীপুর সরকারি কলেজে উম্মুক্ত বিশ্ববিদ্যালয়ের অধীনে ডিগ্রি পরীক্ষার্থী।

মামলার এজাহারে বলা হয়েছে, গত শুক্রবার রাতে বাস টামির্নাল থেকে বাসায় ফেরার সময় জেলা শহরের শাখারীপাড়ার ছোটপুল এলাকায় ফারহানা আক্তারকে (৩২) ধারালো অস্ত্র দিয়ে কুপিয়ে তার ব্যাগ ও মোবাইল ফোন ছিনিয়ে নেয় অজ্ঞাত ব্যক্তি। ফারহানা লক্ষ্মীপুর মহিলা কলেজ থেকে উম্মুক্ত বিশ্ববিদ্যালয়ের অধীনে ডিগ্রী শেষ বর্ষের পরীক্ষার্থী। এ ছাড়াও তিনি লক্ষ্মীপুরে সেইভ দ্যা চিলড্রেনের মা-মনি প্রকল্পের কর্মী ছিলেন। সে সুবাদে ডা. আশফাকুর রহমান মামুনের সঙ্গে তার প্রেমের সর্ম্পকের সূত্র ধরে গত ২৭ ডিসেম্বর তাদের বিয়ে হয়। এরপর কাবিন চাইলে ডা. মামুন ক্ষিপ্ত হয়ে তাকে লক্ষ্মীপুর না আসার জন্য হুমকি দেয়। তিনি সন্দেহ করছেন, ডাক্তার মামুন কাউকে দিয়ে তার ওপর এ হামলা করে। স্থানীয় লোকজন তাকে উদ্ধার করে সদর হাসপাতালে ভর্তি করেছেন।

সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আবদুল্লাহ আল মামুন ভূঁইয়া ও জেলা মহিলা বিষয়ক কর্মকর্তা সুলতানা জোবেদা খানম মামলার বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।


মন্তব্য