kalerkantho


শেরপুরে উৎসবের আমেজে উদযাপিত হচ্ছে দুর্গা পূজা

শেরপুর প্রতিনিধি   

৯ অক্টোবর, ২০১৬ ১৯:২৪



শেরপুরে উৎসবের আমেজে উদযাপিত হচ্ছে দুর্গা পূজা

আজ মহাঅষ্টমী। শেরপুরের প্রতিটি পূজামণ্ডপে সকাল থেকেই ভিড় বেড়েছে ভক্তদের। মণ্ডপে মণ্ডপে চলছে পুরোহিতের মন্ত্রপাঠ। আর বাইরে উৎসবের আমেজ। বর্ণাঢ্য তোরণ, মণ্ডপের দর্শনীয় সাজসজ্জা সব মিলিয়ে পুরো জেলা শহর সেজেছে উৎসবের সাজে। এদিকে, দুর্গা পূজার সার্বিক নিরাপত্তা পরিস্থিতি পর্যালোচনা করতে আজ রবিবার জেলা প্রশাসকের কার্যালয়ে জেলা আইনশৃঙ্খলা কোর কমিটির এক সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে। জেলা পূজা উদযাপন পরিষদের তথ্য মতে, শেরপুর জেলায় এবার ১৫১টি মণ্ডপে পুজিত হচ্ছেন দেবী দুর্গা। জেলা সদরেই রয়েছে ৭৫টি পূজামন্ডপ। শুধু জেলা শহর নয় সারা জেলাতেই হিন্দু সম্প্রদায়ের মধ্যে বিরাজ করছে আনন্দ উচ্ছাস।

নিরাপত্তার দিকটিও নিশ্চিত করেছে আইনশৃঙ্খলা বাহিনী। প্রতিটি মণ্ডপে দেওয়া হয়েছে পুলিশ ও আনসার। রয়েছে ভ্রাম্যমাণ আদালত ও স্ট্রাইকিং ফোর্স। এছাড়া মোড়ে মোড়ে পুলিশ ও সাদা পোশাকের পুলিশ দিয়ে নিরাপত্তার চাদরে ঢেকে দেওয়া হয়েছে জেলা শহরসহ অন্যান্য উপজেলা শহরগুলোও।

এ ব্যাপারে শেরপুরের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার সালাহউদ্দিন শিকদার বলেন, ‘আমরা আমাদের সর্বোচ্চ চেষ্টা করছি, যাতে দুর্গোৎসবটি শান্তিপূর্ণভাবে শেষ হয়। ’

এদিকে শেরপুর জেলা প্রশাসক ডা. এএম পারভেজ রহিম বলেন, ‘আমরা আজ সকালে বিজিবি, র‌্যাব, পুলিশ ও অন্যান্য আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর সমন্বয়ে আইনশৃঙ্খলা কমিটির কোর সভা করেছি। সভায় সর্বোচ্চ নিরাপত্তা দেওয়ার ব্যাপারটি নিশ্চিত করা হয়েছে। ’

শেরপুর পূজা উদযাপন পরিষদের সভাপতি দেবাশীষ ভট্টাচার্য্য বলেন, ‘আমরা নিরাপত্তা নিয়ে সন্তুষ্ট। আমরা নিজেরাও এ ব্যাপারে সচেষ্ট আছি। শান্তিপূর্ণ পরিবেশে দূর্গাপূজা উদযাপিত হচ্ছে। ’

এদিকে রবিবার রাতে শহরের গোপালবাড়ী মন্দির প্রাঙ্গণে শারদীয় দুর্গোৎসব উপলক্ষে সুধীবৃন্দের সাথে শুভেচ্ছা বিনিময় ও এক নৈশভোজের আয়োজন করে শেরপুর জেলা পূজা উদযাপন পরিষদ। এতে জাতীয় সংসদের হুইপ মো. আতিউর রহমান আতিক এমপি, জেলা প্রশাসক ডা. এ এম পারভেজ রহিম, পুলিশ সুপার মো. মেহেদুল করিম, জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক পিপি অ্যাডভোকেট চন্দন কুমার পাল, শেরপুর সদর উপজেলা চেয়ারম্যান ছানুয়ার হোসেন ছানু, শেরপুরের পৌর মেয়র গোলাম মোহাম্মদ কিবরিয়া, সাবেক মেয়র হুমায়ূন কবির রুমান, চেম্বার সভাপতি উপস্থিত ছিলেন।  

এ ছাড়াও অন্যান্যদের মধ্যে অনুষ্ঠানে অংশগ্রহণ করেন বিশিষ্ট শিল্পপতি মো. ইদ্রিস মিয়া, সাবেক পৌর চেয়ারম্যান লুৎফর রহমান মোহন, প্রেসক্লাব সম্পাদক সাবিহা জামান শাপলা, সহ বিভিন্ন পর্যায়ের জনপ্রতিনিধি, রাজনীতিক, ব্যবসায়ী নেতৃবৃন্দ, সাংবাদিক, সংস্কৃতি কর্মী, সরকারি-বেসরকারি কর্মকর্তা ও বিশিষ্ট নাগরিকরা।  


মন্তব্য