kalerkantho

বৃহস্পতিবার । ৮ ডিসেম্বর ২০১৬। ২৪ অগ্রহায়ণ ১৪২৩। ৭ রবিউল আউয়াল ১৪৩৮।


নীলফামারী-জলঢাকা সড়ক উন্নয়ন কাজের উদ্বোধন করেন সংস্কৃতিমন্ত্রী

‘একটি অপশক্তি দেশের উন্নয়ন ব্যাহত করার অপচেষ্টা চালাচ্ছে’

নীলফামারী প্রতিনিধি   

৯ অক্টোবর, ২০১৬ ১৬:০৯



‘একটি অপশক্তি দেশের উন্নয়ন ব্যাহত করার অপচেষ্টা চালাচ্ছে’

নীলফামারী জলঢাকা সড়ক উন্নয়ন কাজের উদ্বোধন করেছেন সাংস্কৃতিমন্ত্রী আসাদুজ্জামান নূর। রবিবার বেলা ১২টার দিকে জলঢাকা উপজেলা শহরের পেট্রল পাম্প এলাকায় ফলক উম্মোচন করে কাজের উদ্বোধন করেন তিনি।

এ সময় সংস্কৃতিমন্ত্রী আসাদুজ্জামান নূর বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে দেশ যখন উন্নয়নের পথে এগিয়ে চলছে, সেই মুহূর্তে একটি অপশক্তি দেশের উন্নয়ন ব্যাহত করার অপচেষ্টা চালাচ্ছে। শেখ হাসিনার সরকার ক্ষমতায় আসার পর থেকে দেশের সকল খাতে উন্নয়ন ঘটেছে। মানুষের কর্মসংস্থান সৃষ্টির মাধ্যমে দেশ উন্নীত হয়েছে মধ্য আয়ে। শিক্ষা, চিকিৎসা, সাংস্কৃতি, যোগাযোগসহ সকল ক্ষেত্রে উন্নয়নের সুফল পেতে শুরু করেছে দেশের মানুষ। দেশ উন্নীত হয়েছে ডিজিটালে। কিন্তু সেই অপশক্তি উন্নয়ন সহ্য করতে না পেরে তা ব্যাহত করতে নানা অপচেষ্টা চালাচ্ছে। সরকারের উন্নয়নের সুফল সাধারণ মানুষের কাছে পৌঁছে দিতে আওয়ামী লীগসহ সকল অঙ্গসংগঠনের নেতাকর্মীদের ঐক্যবদ্ধভাবে কাজ করতে হবে।

সভায় নীলফামারী সড়ক ও জনপথ বিভাগের নির্বাহী প্রকৌশলী একেএম হামিদুর রহমনের সভাপতিত্বে বক্তৃতা দেন নীলফামারী-৩ (জলঢাকা-কিশোরগঞ্জ আংশিক) আসনের সংসদ সদস্য অধ্যাপক গোলাম মোস্তফা, জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি দেওয়ান কামাল আহমেদ, সাধারণ সম্পাদক মমতাজুল হক, সদর উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আবুজার রহমান, জেলা যুব মহিলা লীগের সভাপতি আরিফা সুলতানা, নীলফামারী পৌর আওয়ামী লীগের সভাপতি মসফিকুর রহমান, জলঢাকা উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি আনছার আলী, সাধারণ সম্পাদক শহিদ হোসেন, সাংগঠনিক সম্পাদক দেলোয়ার হোসেন প্রমুখ।

নীলফামারী সড়ক ও জনপথ বিভাগের উপ-বিভাগীয় প্রকৌশলী ফিরোজ আকতার সিদ্দিকী জানান, নীলফামারী-জলঢাকা ২২ কিলোমিটার সড়কের উন্নয় কাজে খরচ হবে ৬৬ কোটি ৩৩ লাখ ৯৫ হাজার টাকা। বর্তমানে ১২ ফিটের সড়কটি ১৮ ফিটে উন্নীত করা হবে। উন্নয়ন কাজে রয়েছে চারটি ব্রীজ ও তিনটি কালভার্ট। ২০১৮ সালের ডিসেম্বর মাসের মধ্যে কাজটি সমাপ্ত হবে।

নীলফামারী-৩ আসনের সংসদ সদস্য অধ্যাপক গোলাম মোস্তফা বলেন, সড়কটির উন্নয়ন শেষ হলে জলঢাকা উপজেলা শহর থেকে জেলা শহরে যাতায়াতে সময় কম লাগবে। সড়কটি প্রসস্ত হওয়ায় দূর্ঘটনা কমবে। যোগাযোগ ব্যবস্থার উন্নয়নে ব্যবসা বাণিজ্যের প্রসার ঘটবে, মানুষের অর্থনৈতিক মুক্তি আসবে।

এর আগে সংস্কৃতিমন্ত্রী গত শনিববার বিকেলে নীলফামারী পৌঁছে জেলা সদরের বিভন্ন  মন্দিরে অনুষ্ঠিত শারদীয় দূর্গাপূজা পরিদর্শন করেন। রবিবার সকালে জেলা সদরে চাঁদেরহাট এলাকায় তিস্তা সেচ খালে ২৩৬ মাছের পোনা অবমুক্ত করেন। সদর উপজেলা মৎস বিভাগের আয়োজনে ওই মাছের পোনা অবমুক্ত করা হয়।

 


মন্তব্য